বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

কারওয়ান বাজারে বসে মাছ কাটছেন তটিনী!

আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪:৩৫

মাছের বাজারের অন্যতম পরিচিত দৃশ্য বটি নিয়ে বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ বসে থাকেন মাছ কাটার জন্য। আর ক্রেতারা মাছ কেনার পর সেখান থেকে মাছ কাটিয়ে নেন। জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিম সাইয়ারা তটিনী তার নতুন নাটক ‘রঙিন আশা’য় এমনই একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। সম্প্রতি শেষ হয়েছে নাটকটির শুটিং।

অপূর্ণ রুবেলের গল্পে নাটকটি পরিচালানা করেছেন রাফাত মজুমদার রিংকু। নাটকে মাছ কাটার দৃশ্যটুকু বাস্তবে তুলে ধরতে সত্যিকারের কারওয়ান বাজারের মাছের আড়তকেই বেছে নিয়েছেন পরিচালক।

তা জানিয়ে রাফাত বলেন, ‘কারওয়ান বাজারে মাছের আড়তে শুটিংয়ের জন্য ভোরবেলাকেই আমরা বেছে নিয়েছিলাম। শত শত ক্রেতা–বিক্রেতার ভিড়ের মধ্যেই শুটিং করেছি।

একটি সত্যিকারের মাছ কাটার দোকান ভাড়া করেছিলাম। ওই দোকানে বসেই তটিনী মাছ কাটার কাজ করে শুটিং করেছেন। তটিনীকে চেনা, জানার উপায় ছিল না। মনে হচ্ছিল সত্যিকারেরই মাছ কাটার কাজ করে মেয়েটি।’ 

কাজটি করতে গিয়ে দারুণ সব অভিজ্ঞতা হয়েছে উল্লেখ করে তটিনী বলেন, ‘তিন দিন ভোরে আড়তে প্রায় দুই ঘণ্টা করে শুটিং করেছি। প্রতিদিনই ভোর চারটায় ঘুম থেকে উঠে কারওয়ান বাজারে যেতে হতো।

বাজারের মধ্যে উৎসুক শত শত মানুষের ভিড়ের মধ্যে শুটিং চালিয়ে নেওয়া কঠিন ছিল। শুটিং দেখার জন্য সাধারণ মানুষের কৌতূহল বেশি। তাও আবার কারওয়ান বাজারের মাছের আড়ত’।

তটিনী আরও বলেন, ‘দৃশ্যগুলোতে সত্যি সত্যি মাছ কেটেছি। আমার তো এ ধরনের কাজে অভিজ্ঞতা ছিল না। বাসায় মাছ কেটেছি কয়েক দিন। শুটিংয়ের সময় আমাকে পাঁচ কেজি ওজনের মাছ কাটতে দিয়েছিল।’

‘রঙিন আশা’নাটকে তটিনীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন খায়রুল বাসার। চরিত্রে খায়রুল বাশার কারওয়ান বাজারে ভ্যান চালান। নাটকে স্বামী- স্ত্রীর চরিত্রে দেখা যাবে এই জুটিকে। 

ইত্তেফাক/পিএস