রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

মধুখালীতে পেঁয়াজের দরপতন

আপডেট : ১২ মার্চ ২০২৪, ০২:০০

ফরিদপুরে মধুখালীতে পেঁয়াজের দাম কমেছে মণপ্রতি ৮০০টাকা। বেশি দাম পাওয়ার আশায় অনেক কৃষক সোমবার হাটে পেঁয়াজ বিক্রি করতে আনেন। এতে ব্যাপক সরবরাহ হওয়ায় পেঁয়াজের দাম কমে যায়। দাম কমায় অনেক চাষিকে পেঁয়াজ বাড়িতে ফেরত নিয়ে যেতে দেখা গেছে। গত হাটে যে পেঁয়াজে প্রতিমণ ৩ হাজার ২০০ টাকা ছিল, সে পেঁয়াজ সোমবার হাটে ২ হাজার ২০০ থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি হয়।

জানা গেছে, সোমবার উপজেলার বৃহত্তম পেঁয়াজের হাট মধুখালী পৌর সদরে পেঁয়াজ নিয়ে হাজির হন বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকরা। এতে ব্যাপক সরবরাহ হওয়ায় পেঁয়াজের দাম কমে যায়। দুই সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১১০ টাকায় বিক্রি হলেও এখন তা বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। মধুখালী হাটে পেঁয়াজ বিক্রি করতে আসা কামারখালীর কৃষক মো. সাইদ মিয়া বলেন, গত হাটে পেঁয়াজ ৩ হাজার থেকে ৩ হাজার ২০০টাকায় বিক্রি করি। সেই পেঁয়াজ ২ হাজার ২০০ থেকে ২ হাজার ৫০০টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাম কম হওয়ায় ফেরত নিয়ে যাচ্ছি।

আড়তদার মো. সাইফুল মোল্যা বলেন, গত হাটের তুলনায় পেঁয়াজ আমদানি অনেক বেশি হওয়ায় দাম কমে যায়। উল্লেখ্য, উপজেলার মেগচামী, গাজনা, কামালদিয়া, নওপাড়া ইউনিয়নসহ কয়েকটি ইউনিয়নে এবার প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার আলভী রহমান জানান, চলতি মৌসুমে মধুখালীতে মোট মুড়িকাটা, দানা এবং হালিসহ সব মিলিয়ে ৩ হাজার ২৪০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ আবাদ হয়েছে। গত মৌসুমে মধুখালীতে মোট ২ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের পেঁয়াজের আবাদ করা হয়। গত বছরের তুলনায় প্রায় ৫০০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদ বেশি হয় এবং ফলনও ভালো হয়। 

ইত্তেফাক/এমএএম