শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০
The Daily Ittefaq

ইন্দোনেশিয়ায় পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দাবি

আপডেট : ২৭ মার্চ ২০২৪, ১৬:২৭

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দ্বিতীয় হওয়া আনিস বাসওয়েদান নির্বাচনে রাষ্ট্রীয় হস্তক্ষেপের অভিযোগ এনে পুনরায় নির্বাচন আয়োজনের দাবি জানিয়েছেন।

জাকার্তার সাবেক গভর্নর বাসওয়েদান সাংবিধানিক আদালতকে বলেন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্রাবোয়ো সুবিয়ান্তোকে জেতাতে প্রশাসন আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষের ওপর চাপ প্রয়োগ করেছিল। এছাড়া সামাজিক সহায়তাকে ‘লেনদেনের হাতিয়ার’ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল।

তবে প্রেসিডেন্ট জকো উইডোডোর প্রশাসন গত মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগ অস্বীকার করেছে। একসময় একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও উইডোডো নির্বাচনে সুবিয়ান্তোকে সমর্থন দিয়েছেন। সুবিয়ান্তো উইডোডোর কাজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার অঙ্গীকার করেছেন। অবকাঠামো আধুনিকীকরণ, নতুন চাকরি তৈরি, খনিজ সম্পদকে কাজে লাগানোর জন্য শিল্প প্রতিষ্ঠার মতো কাজ চালিয়ে যেতে চান তিনি।

সুবিয়ান্তো ৬০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। বাসওয়েদান পেয়েছেন ২৫ শতাংশ, আরেক প্রার্থী গানজার প্রানোয়ো পেয়েছেন ১৬ শতাংশ ভোট।

বাসওয়েদান বলেন, এই নির্বাচনের কারণে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশটিতে অতীতের মতো কর্তৃত্ববাদী শাসন প্রতিষ্ঠার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। ‘আমরা যদি এখনই এর সংশোধন না করি, তাহলে এটি ভবিষ্যতে সব স্তরের নির্বাচনের জন্য একটি নজির হয়ে উঠবে,’ বলেন তিনি। ‘এই ব্যবস্থাটা স্বাভাবিক অভ্যাসে পরিণত হবে,’ বলেও মনে করেন বাসওয়েদান।

ইন্দোনেশিয়ায় নির্বাচনের ফলাফলকে আদালতে চ্যালেঞ্জ জানানো একটি নিয়মিত ঘটনা। বাসওয়েদানের চ্যালেঞ্জের বিষয়ে আদালত ২২ এপ্রিল সিদ্ধান্ত জানাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সুবিয়ান্তোর আইনজীবীরা বলছেন অনুমানের ওপর ভিত্তি করে বাসওয়েদান অভিযোগ এনেছেন এবং এর সমর্থনে উল্লেখযোগ্য প্রমাণ নেই।

এদিকে, নির্বাচনে তৃতীয় হওয়া প্রার্থী গানজার প্রানোয়োর আইনজীবীরা ২৬ জুনের মধ্যে পুনরায় নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশ দিতে সাংবিধানিক আদালতকে অনুরোধ করেছেন। তারা বলেন, শেষ মুহূর্তে সুবিয়ান্তোর ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রেসিডেন্ট উইডোডোর ছেলে জিবরান রাকাবুমিং রাকার অন্তর্ভুক্তি নির্বাচনকে প্রভাবিত করেছে।

ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার যোগ্যতার আইনে হঠাৎ পরিবর্তন আনায় রাকার পক্ষে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছিল। যে আদালত এমন পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত দিয়েছিল তার প্রধান ছিলেন প্রেসিডেন্ট উইডোডোর সম্বন্ধী আনোয়ার উসমান।

ইত্তেফাক/এসএটি