মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

চোখের সামনে মৃত্যু দেখতে পাচ্ছিলাম: থানচি থেকে সায়মা স্মৃতি

আপডেট : ০৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪:০৮

বান্দরবানের থানচিতে শুটিং করতে বিপাকে পড়েছে ‘নাদান’ সিনেমার টিম। গত ১ এপ্রিল থেকে তারা একটি দুর্গম এলাকায় শুটিং করলেও বুধবার দুপুরে সেই এলাকার সোনালী ব্যাংকে হামলা চালায় পাহাড়ি সন্ত্রাসী সংগঠন কুকি-চিন। দুপুরের পর থেকে ব্যাপক গোলাগুলি হয়। এমন কাণ্ডে সেখানে আটকা পড়ে সিনেমার প্রায় ১০০ সদস্যের টিম।

তবে নাদান টিম এখন দুর্গম এলাকা থেকে বান্দরবান শহরে এসে পৌঁছেছে বলে জানিয়েছেন নাদান সিনেমার নায়িকা সায়মা স্মৃতি।

সংবাদমাধ্যম অনুযায়ী, সায়মা বলেন, ‘আমরা যেখানে শুটিং করতে এসেছি সেটা একদমই দুর্গম এলাকা। আমাদের শুটিং অলমোস্ট ৭০ ভাগ শেষ, আর অল্প কিছু বাকি। এরমধ্যেই আজকে এমন একটা অবস্থার মুখোমুখি। কী যে ভয়াবহ একটা অবস্থা গেল আমাদের ওপর সেটা বলে বোঝানো যাবে না। 

মনে হচ্ছে, চোখের সামনে মৃত্যু দেখতে পাচ্ছিলাম! সন্ত্রাসীরা গান ফায়ার করছে সেটা একদম চোখের সামনে দেখতে পাচ্ছি। প্রতিটা সেকেন্ড বুক ধড়ফড় করছিল আমার।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোথাও দৌড়ে যাব সে অবস্থাও নেই। কোনো গাড়ি নেই কিছু নেই। পুরো শহরে রেড এলার্ট। পরে বিজিবির সহায়তায় আমরা কোনরকমে জায়গাটা ত্যাগ করি। এরপর বাসে বান্দরবন শহরে আসি।’
 
জানা গেছে, গত ১ এপ্রিল থানচিতে শুটিংয়ে অংশ নেন অভিনেতা শ্যামল মাওলা, তার স্ত্রী মাহা, সিনেমাটির পরিচালক ফরহাদ চৌধুরী, অভিনেতা এরফান মৃধা শিবলু ও চিত্রনায়ক সাইফ খানসহ বেশ কয়েকজন। টানা দুইদিন কাজ করার পর বুধবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে বিপাকে পড়েন তারা।
   
এর আগে মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) রাত ৯ টার দিকে ৭০ থেকে ৮০ জনের একটি সশস্ত্র দল রুমাতে সোনালী ব্যাংকে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে ১৪টি অস্ত্র লুট করে এবং সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক নিজাম উদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

ইত্তেফাক/পিএস