মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

আসামি ছিনিয়ে নিতে থানায় হামলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার

আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:৩২

বগুড়ার শাজাহানপুরে আসামিকে ছিনিয়ে নিতে মো. নুরুজ্জামান নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বিরুদ্ধে থানায় হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে। হামলায় পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৫ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রাতেই পুলিশ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নুরুজ্জামানসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

শনিবার (৬ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে শাজাহানপুর থানায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তাররা হলেন, শাজাহানপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মাঝিড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি সাইদুর রহমান, আড়িয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিঠুন হাসান, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী সাদ্দাম রবীন, রমজান আলী, বোরহান উদ্দিন, মিরাজুল রহমান, আমিনুল ইসলাম ও মিঠুন মিঞা। 

শাজাহানপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত ৯টায় আড়িয়া বাজার এলাকা থেকে চাকু ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিঠুনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে হত্যা, মাদকসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। 

রাত ১০টার দিকে আসামি মিঠুন মিয়াকে ছিনিয়ে নিতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নুরুজ্জামান অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে থানায় হামলা চালায়। এ সময় থানায় কর্মরত পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। হামলায় অন্তত ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে এসআই আনিছুর রহমান, কনস্টেবল ইসমাইল হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম, রুহুল আমিন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। 

ওসি বলেন, নুরুজ্জামানসহ আরও লোকজন নিয়ে আবারও হামলা চালাতে মাঝিড়ায় ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে অবস্থান নেয়। তাদের সরিয়ে দিতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। একপর্যায়ে সড়ক অবরোধকারীদের লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ ও নুরুজ্জামানসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তারসহ ৩৬টি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় নুরুজ্জামান ও তার ২০ নেতা-কর্মীর নামে এবং অজ্ঞাত ১০০-১৫০ জনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা, পুলিশকে মারধর ও অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগে শনিবার রাতেই মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর ওই রাতেই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নুরুজ্জামান ও তার সহযোগী নাজমুলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দুটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। 

উল্লেখ্য, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নুরুজ্জামানের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, জমি দখল, সরকারি কাজে বাধা, মাদক আইনে অন্তত ৮-১০টি মামলা রয়েছে। এর আগে সরকারি টেন্ডার চুরির ঘটনায় মাঝিড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান বরখাস্ত হয়েছিলেন।

ইত্তেফাক/এবি