বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

‘জিম্বাবুয়ে সিরিজে নয় আইপিএলেই খেলা উচিত মুস্তাফিজের’

আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৮

চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) একমাত্র বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে পাঁচ বারের শিরোপা জয়ী দল চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলছেন টাইগার কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। আসরের প্রথম ম্যাচ থেকেই দুর্দান্ত খেলছেন তিনি। বল হাতে উইকেটও পেয়ে যাচ্ছেন নিয়মিত। শুরুর দিকে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হিসেবে তার নাম থাকলেও বর্তমানে রয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে।

যদিও সবশেষ ম্যাচে তিনি ছিলেন বেশ খরুচে। বিশ্বকাপের আগে এমন দারুণ ছন্দে থাকার পরও টুর্নামেন্টটি শেষ না করেই তাকে চলতি মাস শেষ হলেই ধরতে হবে দেশের বিমান। কেননা আগামী মাসের শুরুতেই ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। তবে কাটার মাস্টারকে এই সিরিজে নয়, আইপিএলে দেখতে চান বিসিবি পরিচালক আকরাম খান। আইপিএলে মুস্তাফিজ অনেক কিছু শিখতে পারবেন যেটা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে পারবেন না এমনটি মনে করেন তিনি।

গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এ প্রসঙ্গে বিসিবি এই পরিচালক বলেন, ‘মুস্তাফিজের পারফরম্যান্স নিয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম কারণ ও গত এক বছর ধরে পারফরম নিয়ে সংগ্রাম করছিল কিন্তু এখন আইপিএলে কিন্তু ওর পারফরম্যান্সটা ভালো দিকে যাচ্ছে, একদম যে ভালো হচ্ছে তা না। আর যেহেতু ও দীর্ঘ ফরম্যাটে খেলেনা তো আমার মনে হয় যে ও যদি আইপিএলে এইরকম ভালো করতে থাকে তাহলে বিশ্বকাপে অনেক বেশি বেনিফিটেড হবে বাংলাদেশ। তো এই জিনিসটা চিন্তা করতে পারে বোর্ড তারপরও পুরো ব্যাপারটা হচ্ছে টিম স্টাফ ও যারা জাতীয় দলের সিলেক্টররা চিন্তা ভাবনা করবে। কিন্তু সে যে ভালো করছে, এটা বাংলাদেশের জন্য ভালো।’

এর আগে বিসিবি মুস্তাফিজকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত আইপিএলে খেলার জন্য ছাড়পত্র দিয়েছিল। শোনা যাচ্ছে সেই ছুটি আরো এক দিন বাড়িয়ে ১ মে পর্যন্ত করা হয়েছে। অর্থাত্ চেন্নাইয়ের হয়ে অতিরিক্ত আরেকটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে ফিজ। তবে এরপর তাকে দেশে ফিরেই ব্যস্ত হতে হবে কেননা ৩ মে থেকেই টাইগাররা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তবে এই সিরিজে খেলার থেকে মুস্তাফিজ আইপিএলে থাকলে বাংলাদেশই বেশি লাভবান হবে বলে মনে করেন আকরাম খান।

বলেন, ‘মুস্তাফিজ যে ধরনের খেলোয়াড় তাকে যদি আপনি ব্যবহার করতে জানেন তাহলে শতভাগ লাভবান হবেন। সত্যি কথা বলতে, সে চেন্নাইয়ের হয়ে যত ম্যাচ খেলবে, ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হবে, যে আপনার ধোনির দল করছে। ও কলকাতার বিপক্ষে যেভাবে বল করেছে যেভাবে পরিকল্পনা করেছে। তো আমার মনে হয় কি ও চেন্নাইয়ের হয়ে যত ম্যাচ খেলবে সে ব্যক্তিগত ভাবে তত লাভবান হবেন তার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশও লাভবান হবে। কারণ, জিম্বাবুয়ের সঙ্গে খেলার চেয়ে সেখানে খেললে অনেক কিছু শিখতে পারবে। ড্রেসিংরুমের ব্যাপার আছে, বড় খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলবে। সেখানকার মান ভালো, বিভিন্ন উইকেট, বিভিন্ন মানের খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলবে। তো আমার মনে হয়, ওর সুযোগ পাওয়া উচিত।’

এখন পর্যন্ত চলমান আইপিএলে পাঁচ ম্যাচ খেলে ১০ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ। যদিও চেন্নাইয়ের সব শেষ ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে সবচেয়ে খরুচে বোলার ছিলেন তিনি। তবে ম্যাচ জয়েও ছিল তার বড় অবদান। এই ম্যাচে উইকেট পেয়েছেন ১টি, সঙ্গে বাউন্ডারি লাইনে সূর্যকুমার যাদবের অসাধারণ এক ক্যাচ ধরে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন ফিজ। এখন পর্যন্ত উইকেট সংগ্রাহকের তালিকায় তিনি আছেন যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে। সমান ম্যাচ খেলে তার থেকে ১ ম্যাচ বেশি খেলে জাসপ্রীত বুমরাহ নিয়েছেন ১০ উইকেট। ১১ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে আছেন যুজবেন্দ্র চাহাল।

ইত্তেফাক/এএম