মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

স্মার্টফোন উৎপাদনে অ্যাপলকে ছাড়িয়ে শীর্ষে স্যামসাং

আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১৯:৩৯

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে স্মার্টফোন উৎপাদনে শীর্ষে উঠে এসেছে স্যামসাং। ২০ দশমিক ৮ শতাংশ বাজার হিস্যা নিয়ে অ্যাপলকে ছাড়িয়ে শীর্ষস্থান দখলে নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রযুক্তি জায়ান্টটি।

বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইডিসির বরাতে রয়টার্সে প্রকাশিত খবরে এ তথ্য উঠে এসেছে। প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, ২০২৪ সালের প্রথম প্রান্তিকে বিশ্ববাজারে স্মার্টফোন বিক্রি ৭ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়ে ২৮ কোটি ৯৪ লাখ ইউনিট ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে বাজার হিস্যায় অ্যাপলকে ছাড়িয়ে গেছে স্যামসাং।

গত বছরের ডিসেম্বরে পুরো চিত্রই ভিন্ন ছিল। সে সময় স্যামসাংকে ছাড়িয়ে ডিভাইস বাজারজাতে শীর্ষে ছিল আইফোন নির্মাতা। কিন্তু হুয়াওয়েসহ অন্য অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস উৎপাদনকারীদের প্রভাবে অ্যাপলের বাজার হিস্য ১৭ দশমিক ৩ শতাংশে নেমে এসেছে। দুই কোম্পানির প্রতিযোগিতার মধ্যে ১৪ দশমিক ১ শতাংশ বাজার হিস্যা নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চীনা কোম্পানি শাওমি।
চলতি বছরের শুরুতে গ্যালাক্সি এ২৪ সিরিজ উন্মোচন করে স্যামসাং। এর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৬ কোটি ডিভাইস বিক্রি করেছে কোম্পানিটি। আরেক বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্টের তথ্যানুযায়ী, বৈশ্বিক পর্যায়ে গ্যালাক্সি এস২৪ এর বিক্রি ২০২৩ সালের তুলনায় চলতি বছর ৮ শতাংশ বেড়েছে।

আইডিসির তথ্যানুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে অ্যাপল ৫ কোটি ১০ লাখ ইউনিট আইফোন বিক্রি করেছে। যেখানে আগের বছরের একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ৫ কোটি ৫৪ লাখ ইউনিট। অন্যদিতে ২০২৩ সালের শেষ প্রান্তিকে চীনের বাজারে অ্যাপলের স্মার্টফোন বিক্রি কমেছে ২ দশমিক ১ শতাংশ।
প্রযুক্তিবিদ ও বিশ্লেষকদের মতে, স্মার্টফোনের শীর্ষ বাজার চীনের বিভিন্ন কোম্পানি ও সরকারি সংস্থা কর্মীদের আইফোন ব্যবহার থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে। যে কারণে বিক্রিতেও নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জুনে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ওয়ার্ল্ডওয়াইড ডেভেলপার সম্মেলনে (ডব্লিউডব্লিউডিসি) আপডেটেড  সফটওয়্যারের আইফোন, আইপ্যাড ও অন্যান্য ডিভাইস উন্মোচন করতে পারে অ্যাপল। বিনিয়োগকারীরা এ ইভেন্ট নিয়ে আশাবাদী বলে সূত্রে জানা গেছে।

অন্যদিকে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের সঙ্গে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চীনের বাজার ক্রমশ হারাচ্ছে অ্যাপল, এমনটাই অভিমত বিশ্লেষকদের। প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, গত বছরের তুলনায় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে আইফোন বিক্রি কমেছে ৩৩ শতাংশ। এ নিয়ে টানা দুই মাস চীনের বাজারে অ্যাপলের বিক্রি নিম্নমুখী রয়েছে।
চলতি বছরের জানুয়ারিতে অ্যাপলের বিক্রি নিম্নমুখী ছিল। সে সময় কোম্পানির বিক্রি আগের বছরের তুলনায় ৩৯ শতাংশ বা ৫৫ লাখ ইউনিট কমেছিল। ক্রমেই বিক্রি কমে যাওয়ায় প্রযুক্তিবিদরা বিশ্বের অন্যতম বাজারে কোম্পানির সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন।

চীনে বিক্রি বাড়ানোর জন্য অ্যাপল বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছে। এর মধ্যে মূল্যছাড়ও রয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন অফার দিয়েও দেশটির বাজারে কোম্পানির হিস্যা ধরে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে এ প্রযুক্তি জায়ান্ট। বিশ্লেষকদের মতে, সামনের মাসগুলোয় অ্যাপলকে আরো কঠিন সময় পার করতে হবে। সে সময় বিক্রি আরো কমবে।
ইটি টেলিকমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, আইফোনের প্রতি চীনের অধিবাসীদের আগ্রহ কমে আসছে। চলতি বছরের প্রথম ছয় সপ্তাহ চীনে নতুন স্মার্টফোন কেনার উপযুক্ত সময় হলেও আইফোনের বিক্রি ২৪ শতাংশ কমেছে বলে কাউন্টারপয়েন্ট সূত্রে জানা গেছে। এর বিপরীতে হুয়াওয়ের বিক্রি বেড়েছে ৬৪ শতাংশ।

বিশ্লেষকরা জানান, ফেব্রুয়ারিতে সাড়ে ৩ হাজার ডলার মূল্যের ভার্চুয়াল রিয়ালিটি হেডসেট এখনো সেভাবে গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে পারেনি। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান টেকইনসাইটসের সিনিয়র পরিচালক লিন্ডা সুই বলেন, ‘চীনে অ্যাপলের যে স্বর্ণযুগ ছিল সেটি শেষ হয়ে গেছে।’ লিন্ডা জানান, ভূরাজনৈতিক এ সংঘাত নিরসন করা না হলে অ্যাপলের পক্ষে আবার শীর্ষে উঠে আসা সম্ভব না।

 

ইত্তেফাক/এনএ