সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নিলামে উঠছে ম্যারাডোনার চুরি যাওয়া ‘গোল্ডেন বল’

আপডেট : ০৯ মে ২০২৪, ১৩:৪৬

২০২০ সালের ৫ নভেম্বর না ফেরার দেশে পাড়ি জমান আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা। বছরের হিসাবে প্রায় চার বছর তিনি নেই। তবে সম্প্রতি আবারও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ‘হ্যান্ড অফ গড’ খ্যাত এই ফুটবলার বিশ্বের বাঘাবাঘা গণ্যমাধ্যমগুলোর ‘শিরোনাম’ হচ্ছেন। কিছু দিন আগে তার মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়। পরে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসে, সেটা নিয়ে পরে তার মেয়ে আবার প্রতিবাদ করেন। এ নিয়ে চলে আলোচনা। এর মধ্যেই এবার ১৯৮৬ সালে মেক্সিকো বিশ্বকাপের জেতা এই কিংবদন্তি ফুটবলারের ‘গোল্ডেন বল’ উঠছে নিলামে।

১৯৮৬ সালের সেই বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানিকে ৩-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনা। এই ফাইনাল ম্যাচের আগে কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে হাত দিয়ে গোল দিয়ে ‘হ্যান্ড অফ গড’ উপাধি পান আর্জেন্টাই এই কিংবদন্তি ফুটবলার। সেই বিশ্বকাপে পাঁচ গোল ও পাঁচটি গোলে সহায়তা করে গোল্ডেন বল নিজের দখলে নিয়ে নেন ম্যারাডোনা।

তবে ম্যারাডোনার মৃত্যুর আগে একটা সময় খবর রটে, ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে জেতা ‘গোল্ডেন বল’টি উধাও হয়ে গেছে। পরে ২০১৬ সালে ফ্রান্সে নিলামে কেনেন এক ব্যক্তি। তবে সেই ব্যক্তি জানতেনই না যে, তিনি কী কিনেছেন। সেটি আগামী ৬ জুন ফ্রান্সে নিলামে তুলবে আগুতেস নামে একটি প্রত্নতাত্ত্বিক নিলামকারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির ক্রীড়াবিশেষজ্ঞ ফ্রাঁসোয়া থিরেরি বিসিবি স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে এ ‘গোল্ডেন বল’ নিয়ে বলেন, ‘এটা নিয়ে কত কথা ছড়িয়েছে। সোনার লোভে মাফিয়ারা এটিকে গলিয়ে ফেলেছে, এমন আরও কত কী! তবে আমরা সবকিছু পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়ে পুলিশকে জানিয়েছি গোল্ডেন বলটির কথা। বলটি গত এক বছর ধরেই আছে আমাদের কাছে। এই বলটি যে ১৯৮৬ বিশ্বকাপে জেতা ম্যারাডোনার সেই বল, সেটা পুরোপুরি নিশ্চিত হতে আমরা অনেক গবেষণা করেছি। সেইসঙ্গে যেই প্রতিষ্ঠান এটি বানিয়েছে, আমরা তাদের সঙ্গেও কথা বলে নিশ্চিত হয়েছি যে, এটি আসল বল।’  

কীভাবে ‘গোল্ডেন বল’টি তাদের হাতে এসেছে, এই বিষয়ে এই ক্রীড়াবিশেষজ্ঞ বলেন, ‘২০১৬ সালে এক লোক আরও অনেক জিনিসের সঙ্গে এটিও আমাদের কাছে নিয়ে আসে নিলামে তোলার জন্য। তবে লোকটির জানা ছিল না যে, এটি ম্যারাডোনার ১৯৮৬ সালে জেতা সেই সত্যিকারের ‘গোল্ডেন বল’। এরপর তিনি ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে জানতে পারেন এটিই সম্ভবত সেই গোল্ডেন বল। তবে তিনি মারাদোনা ও ফিফার সঙ্গে এই বলের বিষয় নিয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিলেন, তবে সে সময় সেটা সম্ভব হয়নি।’ 

সেইসঙ্গে নিলামে এই ঐতিহাসিক বলটি চড়া দামে বিক্রি হবে বলে আশাবাদী থিয়ারি। এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এই ট্রফিটা (গোল্ডেন বল) তার খেলোয়াড়ি সামর্থ্যের চূড়ান্ত প্রতীক। তিনি যে শতাব্দীর সেরা খেলোয়াড়, এটি সেটারও সাক্ষ্য দেয়। আমার মনে হয়, ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড ম্যাচের ব্যবহৃত ম্যারাডোনার সেই জার্সিটি ৯ মিলিয়ন পাউন্ডে বিক্রি হয়। এছাড়াও সেই ম্যাচের বল ২ মিলিয়ন পাউন্ডে বিক্রি হয়েছে। আমরা আশা করছি এই ‘গোল্ডেন বল’টিও কয়েক মিলিয়ন পাউন্ড মূল্যে বিক্রি হবে।’ 

ইত্তেফাক/জেডএইচ