রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিশ্বকাপ দলে জায়গা না পেয়ে অবসরের ঘোষণা কিউই ওপেনারের

আপডেট : ১১ মে ২০২৪, ১৪:৪২

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য অভিনব কায়দায় সবার আগে ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড। সেই স্কোয়াডে জায়গা হয়নি তারকা ব্যাটার কলিন মুনরোর। তাতে অভিমানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকেই সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ৩৭ বছর বয়সি এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার।

গতকাল এক বিবৃতির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন মুনরো। অবসরের বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমার ক্যারিয়ারে সবচেয়ে বড় অর্জন হলো নিউজিল্যান্ডের জার্সিতে খেলা। দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামা হয়নি। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে ভালো করার কারণে বিশ্বাস ছিল আবারও জাতীয় দলে ফিরতে পারব। কিন্তু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াডে জায়গা না পাওয়ায় জাতীয় দলের অধ্যায়ের ইতি টানছি। এখনই উপযুক্ত সময় সরে দাঁড়ানোর।’ 

২০২০ সালে সবশেষ ব্ল্যাক ক্যাপসদের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন মুনরো। কিউইদের হয়ে ১টি টেস্ট, ৫৭টি ওয়ানডে ও ৬৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। মারকুটে ব্যাটার হিসেবে মুনরোর খ্যাতি বিশ্ব জুড়ে। ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। সেই সঙ্গে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে তিনটি সেঞ্চুরি রয়েছে এই বাঁহাতি ব্যাটারের। ২০১৬ সালে ঘরের মাটিতে লঙ্কানদের বিপক্ষে ১৪ বলে হাফসেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। সেটি এখনো নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড হয়ে আছে। তাছাড়া সবমিলিয়ে মুনরোর এই ফিফটি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে চতুর্থ দ্রুততম।

মুনরোর অবসর নিয়ে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী স্কট ওয়েনিঙ্ক বলেছেন, ‘মুনরোকে নিউজিল্যান্ডের একজন শর্ট ফর্ম ব্যাটার হিসেবে সবসময় স্মরণ করা হবে। তিনি আমাদের প্রথম খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন যিনি আক্রমণাত্মক ছিলেন। তিনি মাঠের চতুর্দিকে খেলার দক্ষতা রাখতেন। সেই বিষয়টিই এখন সারা বিশ্বে অনুশীলন করা হয়। নতুন খেলার পথপ্রদর্শক হিসেবে ধরা হয় তাকে। মুনরো শতাধিক আন্তর্জাতিক খেলায় অবদান রেখেছেন। তার সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানিয়ে শুভ কামনা জানাই।’

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন