সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসা সুপার গ্রেপ্তার

আপডেট : ১৭ মে ২০২৪, ১৬:৫১

খুলনায় তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১০) শ্লীলতাহানির অভিযোগে মো. হাসিবুর রহমান হাসিব (৫৫) নামে এক মাদ্রাসার সুপারিন্ডেন্টকে (মাদ্রাসা প্রধান) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার মো. হাসিবুর রহমান হাসিব শহীদ শেখ আবু নাসের দাখিল মাদ্রাসার সুপারিন্ডেন্ট (মাদ্রাসা প্রধান) ।

শুক্রবার (১৭ মে) দুপুরে নগরীর সোনাডাঙ্গা সৈয়দ আলী হোসেন সড়কের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর মা জানান, তার ছেলে-মেয়ে মাদ্রাসার সুপার হাসিব ও তার স্ত্রীর কাছে প্রাইভেট পড়ে। মাদ্রাসা সুপারের স্ত্রীর কাছে দুপুর ৩টার দিকে পড়তে যায়। আবার মাগরিবের নামাজের পর মাদ্রাসা সুপারের কাছে পড়ে। হুজুরের স্ত্রীর কাছে ৮-১০ জন পড়লেও মাদ্রাসা সুপারের কাছে শুধু তার দুই ছেলে-মেয়ে পড়ে।

বৃহস্পতিবার রাতে মাদ্রাসা সুপারের কাছে পড়ার সময় তার ছেলেকে ওজু করার কথা বলে ঘরের বাইরে পাঠিয়ে মেয়েকে যৌন নিপীড়ন করে। পরে বাসায় এসে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সব ঘটনা খুলে বলে বলে জানান তার মা।

এদিকে এ ঘটনায় গ্রেপ্তার শিক্ষকের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। তারা জানান, এর আগেও একাধিক ছাত্রীর সঙ্গে মাদ্রাসার সুপারিন্ডেন্ট হাসিবুর রহমান হাসিব এ ধরনের অনৈতিক কাজ করেছেন। কিন্তু মানসম্মানের ভয়ে এতদিন কেউ মুখ খোলেননি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই উত্তম কুমার মিত্র বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মাদ্রাসার সুপারিন্ডেন্ট মো. হাসিবুর রহমান হাসিবের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, শ্লীলতাহানির ঘটনায় মামলা হয়েছে। বর্তমানে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সোনাডাঙ্গা থানার ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রয়েছে।

 

ইত্তেফাক/এবি