মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সানী সানোয়ার-বাঁধনের ভিন্ন পথে হাঁটা এবং...

আপডেট : ২৪ মে ২০২৪, ০৪:৩৩

নিজের জেদ, প্রজ্ঞা, পরিশ্রমের ফলটা আসবেই। দেরিতে বা খুব সহসা। কিন্তু সাফল্য ধরা দেবেই। তা যেন প্রমাণ করে ছাড়লেন অভিনেত্রী বাঁধন। ‘এদেশে নারী প্রধান চরিত্রে আমাকে নিয়ে কে ভাববে? কার এত সাহস?’ কিছুদিন আগেও বাঁধন এ রকম কথা আক্ষেপ করে বলছিলেন একাধিক গণমাধ্যমে। একই সাথে নিজেও নিজের পথ থেকে এতটুকুও সরেননি, কম্প্রোমাইজ করেননি গতানুগতিক চরিত্রে নিজেকে। মরিয়ম, গুটি, খুফিয়ার পর এ যেন অন্য এক তারকা হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করতে চলেছেন এষা মার্ডার মুভিতে। একই সাথে ফিমেল প্রটাগনিস্ট ছবি হয় না এদেশে, সেই ট্যাবুও ভাঙলেন।

ছবিটির নির্মাতা সানী সানোয়ার। এই ছবিটি সফল হওয়া খুব জরুরি। শুধু বাঁধনের জন্য না। বরং সকল নারী অভিনেতার জন্য ভীষণ জরুরি ছবিটির ব্যবসায়িক সফলতা। ঈদুল ফিতরে সিনেমা হলে আসার কথা ছিল জনপ্রিয় অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধনের সিনেমা ‘এশা মার্ডার: কর্মফল’। তবে সে সময় টিজার প্রকাশ করে জানানো হয়, ঈদুল ফিতরে নয়, ছবিটি আসতে চলেছে ঈদুল আজহায়! সেই সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতেই আজ প্রকাশ পেয়েছে ‘এশা মার্ডার: কর্মফল’ সিনেমার পোস্টার। টিজারে যেমন চৌকস পুলিশ অফিসার চরিত্রে দেখা দিয়ে প্রশংসা পেয়েছিলেন বাঁধন, অফিশিয়াল পোস্টারেও তেমন ভঙ্গিতে হাজির হয়েছেন এই তারকা। চোখে মুখে ক্রোধ, হাতে রিভলবার, পুলিশ অফিসার হিসেবে অপরাধীর প্রতি তার মনোভাবকেই তুলে ধরা হয়েছে। পোস্টারটি শেয়ার করে ফেসবুকের ক্যাপশনে বাঁধন লিখেছেন, ‘খুনসহ ধর্ষণের শাস্তি কী হওয়া উচিত?’

ছবিতে বাঁধন ছাড়াও অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, মিশা সওদাগর, সুমিত সেনগুপ্ত, পূজা ক্রুজ, শতাব্দী ওয়াদুদ, মাজনুন মিজান, দীপু ঈমাম, সুষমা সরকার প্রমুখ। ছবিটির টিজারে দেখা গিয়েছিল, অর্চনা গোপ, জেসমিন টিউলিপ এবং এশা জান্নাত নামের তিনজন মেয়ে একই জেলায় খুনসহ ধর্ষণের শিকার হন। যার তদন্তের দায়িত্ব পড়ে পুলিশ অফিসার বাঁধনের ওপর! চৌকস পুলিশ অফিসারের সমস্ত কিছুই দুর্দান্তভাবে যে অনুসরণ করেছেন বাঁধন, তার আভাস টিজার-পোস্টার দুটোতেই পাওয়া যাচ্ছে।

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন