শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সাংবাদিক ও গুণীজনদের পুরস্কার দিলো ডিজিটাল মিডিয়া ফোরাম

আপডেট : ০২ জুন ২০২৪, ২৩:৪৪

সাংবাদিক ও ডিজিটাল গণমাধ্যমকর্মীদের সংগঠন ডিজিটাল মিডিয়া ফোরামের (ডিএমএফ) আয়োজনে ‘ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার (১ জুন) বিকাল ৪টায় রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে এই আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো সাংবাদিকতা ও ডিজিটাল সেক্টরে কর্মরত ব্যক্তিদের সাতটি বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। এবার মোট ১১ জন পুরস্কার পেয়েছেন। তাদের মধ্যে পাঁচ জন সাংবাদিক এবং ছয় জন বিভিন্ন সেক্টরের গুণীজন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডিএমএফ স্পেশাল এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ছয় জন। তারা হলেন রোবোলাইফ টেকনোলজিসের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জয় বড়ুয়া লাভলু, দৈনিক প্রথম আলোর ডেপুটি ম্যানেজার বিবর্ধন রায় ইমন, তেজগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন, নেক্সট ভেঞ্চার্সের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস)পরিচালক আব্দুল্লাহ জায়েদ, খাবার দাবার ক্যাটারিংয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. রাফাতুল ইসলাম খান এবং স্বপ্নের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস।

অনুষ্ঠানে জাফর ওয়াজেদ বলেন, ‘ডিজিটাল মিডিয়া ফোরামের ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড একটি মাইল ফলক। যারা অ্যাওয়ার্ড পেলেন, তারা ভবিষ্যতে আরও ভালো কাজ করবেন, ভালো ও সৎ সাংবাদিকতা করবেন, এই প্রত্যাশা করি।’

শ্যামল দত্ত বলেন, ‘যারা অ্যাওয়ার্ড পেলেন নিশ্চয়ই তারা ভালো কাজের পুরস্কার পেয়েছেন। ডিজিটাল মিডিয়া ফোরামের এমন সাংবাদিকবান্ধব কাজ অব্যাহত থাকুক।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, ‘সাংবাদিকতায় সৎ ও সাহসীরাই সবসময় পুরস্কার পান। আজ যারা পুরস্কার পেলেন, তাদের সাহসীকতা আমাকে মুগ্ধ করেছে। যারা ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড দিলেন, তারা সবাই তরুণ। তাদের এমন আরেকটি সাহসী আয়োজন প্রশংসার দাবিদার।’

ইত্তেফাক/এমএএম