বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

উপজেলা নির্বাচন

উপজেলা নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের প্রচারণা শেষ

ভোটগ্রহণ কাল

আপডেট : ০৪ জুন ২০২৪, ০২:৩০

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ, অর্থাৎ শেষ ধাপের নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা গতকাল সোমবার মধ্য রাতে শেষ হয়েছে। এই ধাপে ৬০ উপজেলায় ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল বুধবার। প্রচারের শেষ দিনে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সক্রিয় ছিলেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা। ছুটেছেন প্রার্থীদের দ্বারে দ্বারে। দিয়েছেন বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি।

নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, আগামী বুধবার অনুষ্ঠিতব্য চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনি প্রচারণা গতকাল সোমবার মধ্য রাতে শেষ হয়েছে। প্রার্থীরা গতকাল রাত থেকেই মাইকিং ছাড়াই ভোটারদের বাড়ি ঘরে গিয়ে দেখা সাক্ষাত করছেন। তবে গত রোববার কেন্দুয়া মোজাফ্ফপুর ইউনিয়ন এবং আশপাশের এলাকায় ঝড়ে বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় প্রার্থীরা সেখানে ভোটারদের নিকট যাচ্ছেন এবং সহায়তার আশ্বাস দিচ্ছেন। উল্লেখ্য, কেন্দুয়ায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে একজন মহিলাও রয়েছেন। তিনি হচ্ছেন  কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সালামা আক্তার। আর অন্য চার প্রার্থী হচ্ছেন—নুরুল আলম মো. জাহাঙ্গীর চৌধুরী, মো. হুমায়ূন কবির চৌধুরী, মোফাজ্জল হোসেন ভুইয়া এবং মো. মিজানুর রহমান মিজান। ১২টি  ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এবং জেলার সব চেয়ে বড় উপজেলা কেন্দুয়া। তাই ভোটারদের বাড়ি ঘুরে দেখা করে ভোট চাইতে গিয়ে প্রার্থীদের দমফাটা অবস্থা।

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, আগামী ৫ জুন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে বুধবার কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল সোমবার মধ্য রাতে প্রচার-প্রচারণা শেষ হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে তিন জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুই জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুই জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার একটি পৌরসভা ও  তেরটি ইউনিয়নে ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮০৫ জন ভোটার রয়েছেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২ হাজার ৬৫ জন, নারী ভোটার ১ লাখ  ৯১ হাজার ৭৩৬ জন এবং ৪ জন হিজড়া ভোটার রয়েছেন। সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ ইত্তেফাককে জানান, নির্বাচনের দিন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

হোমনা (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, আগামীকাল বুধবার চতুর্থ ধাপে হোমনা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল সোমবার মধ্য রাতে প্রচার-প্রচারণা শেষ হয়েছে। নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র সহিংসতা এবং অনিয়মমুক্ত রাখতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে উপজেলার সব কেন্দ্রে (৬১ কেন্দ্রে) বসানো হয়েছে আইপি মুভিং ক্যামেরা। এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেহানা বেগম (আাানারস), উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ কে এম সিদ্দিকুর রহমান আবুল (মোটরসাইকেল), সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শহীদ উল্লাহ (ঘোড়া)। ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান টিপু (টিয়া পাখি), সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য মোকবল হোসেন পাঠান (তালা) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অ্যাড. খন্দকার হালিমা (হাঁস), নাজমা হক (ফুটবল) ও শিউলি আক্তার আলো (কলস) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উপজেলার মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৭৯ হাজার ২৪৩ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ৯৪ হাজার ২৭৪, ও  মহিলা ভোটার ৮৫ হাজার ৬৯ জন। ভোটগ্রহণ কেন্দ্র রয়েছে ৬১টি। ভোট কক্ষ ৪১৯টি, এর মধ্যে স্থায়ী কক্ষ ৪১৯টি এবং অস্থায়ী কক্ষ রয়েছে ১৮টি।

কামারখন্দ (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল ৫ জুন। গতকাল ৩ জুন মধ্য রাতে প্রচার প্রচারণার সময় শেষ হয়েছে। চারটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত কামারখন্দ উপজেলা। এ উপজেলায় ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২১ হাজার ৬৫০। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পাঁচ জন চেয়ারম্যান পদে, চার জন ভাইস চেয়ারম্যান পদে এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চার জন প্রার্থী আলাদা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে ২১টি ভোটকেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহীন সুলতানা জানান, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ করতে ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এমএএম