শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিচারালয়কে বিরোধী দলের জন্য আতঙ্কপুরীতে পরিণত করা হয়েছে: রিজভী

আপডেট : ০৪ জুন ২০২৪, ২২:১০

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেছেন, ক্ষমতা দখলে রেখে অনন্তকাল ক্ষমতায় থাকার অসৎ অভিপ্রায়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিনাশ করার জন্য সরকার বিচার বিভাগকে হাতিয়ারে হিসেবে ব্যবহার করছে। যে বিচারালয় ছিল মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল, সেই বিচারাঙ্গণকে পরিণত করা হয়েছে আওয়ামী স্বর্গ আর বিরোধীদের জন্য অবিচার ও আতঙ্কপুরী। 

মঙ্গলবার (৪ জুন) বিকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাড়ে ৫ বছর কারাগারে থাকা শরীয়তপুর-৩ আসনে ধানের শীষের সাবেক প্রার্থী ও বিএনপির নেতা মিয়া নুরুদ্দিন অপুর মুক্তির দাবি জানিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ কথা বলেন। 

রিজভী বলেন, তাদের নিজেদের লোকদের জন্য এক আইন-সাত খুন মাফ। আর বিরোধীদের জন্য ফরমায়েশী নির্দেশ অনুযায়ী চলে বিচার কার্যক্রম। তারা জামিনও পাবে না। বিনা দোষে তাদের সাজা ভোগ করতে হবে। বিচারের বাণী আক্ষরিক অর্থে আজ নিভৃতে কাঁদছে।

তিনি বলেন, সাবেক ছাত্রদল নেতা, শরীয়তপুর-৩ আসনের ধানের শীষের জনপ্রিয় প্রার্থী, বিএনপির নেতা মিয়া নুরুদ্দিন অপুকে গত প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর কারারুদ্ধ রেখে তার ওপর চলছে সরকারের সর্বোচ্চ মহলের প্রতিহিংসাপরায়ণতার চরম হিংস্রতা। গুরুতর অসুস্থ অপুর জীবন হুমকির মুখে ফেলা হয়েছে। বিভিন্ন সাজানো মামলায় কারাগারে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে অপুকে। যেসব মিথ্যা মামলায় অপুকে অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে তার কোনোটিই প্রমাণ করতে পারেনি আদালত। যে মামলায় তাকে আটক রাখা হয়েছে একই ধারার মামলায় আওয়ামী লীগের নেতা-সন্ত্রাসী, লুটেরা-ব্যবসায়ীরা জামিনে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে, আর অপুর মামলায় জামিনের শুনানি করার তারিখও দিচ্ছে না আদালত। ২০২৩ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট বিভাগ জামিন দিয়েছিলেন অপুকে। কিন্তু ডামি সরকারের সরাসরি নির্দেশে সেই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করে। এর ২৪ দিনের মাথায় গত বছরের ১৪ মার্চ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তার জামিন স্থগিত করে দেয়। এরপর গত এক বছর ২ মাসে আদালতে অনবরত ধর্না দেওয়া হলেও জামিন শুনানির সময় দিচ্ছে না আদালত। বরং তাকে এই মিথ্যা মামলায় ফরমায়েশী সাজা দেওয়ার প্রক্রিয়ায় উঠে পড়ে লেগেছে। রাজনীতির প্রতিহিংসা-জিঘাংসার নির্মম বলি নুরুদ্দিন অপু। ২০১৮ সালের নিশিরাতের ভোট ডাকাতির ৬ দিন আগে ২৩ ডিসেম্বর শরীয়তপুর-৩ আসনের বিএনপির প্রার্থী মিয়া নুরুদ্দিন অপুর প্রচার মিছিলে হামলা করে প্রাণনাশের চেষ্টা চালায় আওয়ামী লীগের ক্যাডাররা। গোসাইরহাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ভবনের সামনের সড়কে এই নারকীয় হামলা চালিয়ে মিয়া নুরুদ্দিন অপুর মাথা ফাটিয়ে দেয় এবং গোটা শরীর থেঁতলে দেয়। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে ঢাকায় এনে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে মাথায় ১৭টি সেলাই দিতে হয়। সে চিকিৎসাধীন থাকাকালীন অবস্থাতেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তখন থেকে সে কারান্তরীণ রয়েছে। মিয়া নুরুদ্দিন অপুকে দীর্ঘদিন কারাগারে আটকিয়ে জামিন না দেওয়া অমানবিক ও মানবাধিকারের সুস্পস্ট লঙ্ঘন। 

রিজভী আরও বলেন, গত ২৭ মে প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমালে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসে ভেসে গেছে দেশের আক্রান্ত উপকূলীয় মৎস্য ঘের ও খামারের প্রায় ১০০০ কোটি টাকার মাছ ভেসে যায় এবং ভেঙে যায় হাজার হাজার মৎস্য ঘের ও খামার। যার ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক ৪০০০ কোটি টাকা। এমনিতে গত ২২ মে হতে সাগর ও নদীর মোহনায় ৬৫ দিনের সরকারি নিষেধাজ্ঞায় মাছ ধরা বন্ধ। তার উপর ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাস যাহা নিবন্ধিত-অনিবন্ধিত জেলেদের মরার উপর খরার ঘা। ক্ষতিগ্রস্থ দেশের এক পঞ্চমাংশ জনগোষ্ঠির পূর্নবাসনে সরকারি কোনো কার্যকর উদ্যোগ বা পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ওবায়দুল কাদের কি ডানে-বামে তাকিয়ে কথা বলছেন, নাকি আপনাদের স্বভাবসুলভ ডাহা মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছেন। বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে বেনজীর যখন বন্দুকের ভাষায় কথা বলতেন তখন তো তাকে অস্বীকার করেননি। বেনজীর-আজিজদের দুর্নীতির দায় আপনারা কখনোই এড়াতে পারবেন না। এ দায় এড়াতে পারে না সরকার। বেনজীর-আজিজের দায় এই সরকারের। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, মীর শরাফত আলী সপু, সেলিমুজ্জামান সেলিম, তারিকুল আলম তেনজিং, আবদুর রহিমসহ অনেকে।

ইত্তেফাক/পিও