বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

খুলনার ৩ উপজেলায় জামানত হারাচ্ছেন ১৮ প্রার্থী

আপডেট : ০৬ জুন ২০২৪, ১০:১৮

খুলনার বটিয়াঘাটা, দাকোপ ও রূপসা উপজেলায় চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ৪১ প্রার্থী। এর মধ্যে ১৮ প্রার্থী জামানত হারাচ্ছেন। 

রিটার্নিং কর্মকর্তা ফারাজী বেনজীর আহমেদ জানান, কোনো প্রার্থী মোট প্রদত্ত ভোটের ৮ ভাগের এক ভাগ ভোট না পেলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত করে নির্বাচন কমিশন। সে অনুযায়ী ৮ ভাগের এক ভাগ ভোট না পাওয়া প্রার্থীদের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বটিয়াঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচনে মোট প্রদত্ত ভোট ৮৩ হাজার ২৩৫। চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন ৬ জন। এর মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জি এম মিলন ৯ হাজার ১, সিপিবি’র নিতাই গাইন ৪ হাজার ৩৩৬, জাতীয় পার্টির মো. শাওন হাওলাদার ৪২৭ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শেখ রাসেল কবীর ৬৯৫ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট প্রদত্ত ভোট ৭৯ হাজার ৮১১। প্রার্থী ছিলেন মোট ৫ জন। এর মধ্যে অরিন্দম গোলদার ৮ হাজার ৬৮৬ ভোট ও তাপস কান্তি বিশ্বাস ২ হাজার ১২ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থীর কেউ জামানত হারাচ্ছেন না।

দাকোপ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মোট প্রদত্ত ভোট ৭৭ হাজার ৩৯৫। ৪ প্রার্থীর মধ্যে স্বতন্ত্র অচিন্ত্য কুমার মন্ডল ৬ হাজার ৫৪৯ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট প্রদত্ত ভোট ৭৭ হাজার ৩৭৮। প্রার্থী ছিলেন মোট ৭ জন। এর মধ্যে তাপস কুমার জোয়ার্দ্দার ৫ হাজার ৪৫৮, দেবপ্রসাদ বৈদ্য ৪ হাজার ১৫২, দেবাশীষ রায় ৭ হাজার ১৬৩, মো. জাহাঙ্গীর মোল্লা ৭ হাজার ৮৯৩ ও সুনীল মন্ডল ২ হাজার ৮৩১ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট প্রদত্ত ভোট ৭৭ হাজার ২০১। প্রার্থী ছিলেন ৫ জন। এর মধ্যে জয়ন্তী রানী সরদার ৮ হাজার ৮৭৮ ও সুভদ্রা সরকার ৫ হাজার ১৩১ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

রূপসা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মোট প্রদত্ত ভোট ৬৯ হাজার ৩৭৫। ৬ প্রার্থীর মধ্যে জাতীয় পার্টির আব্দুল অদুল মোড়ল ১৭৬, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য মো. কামরুজ্জামান ৭ হাজার ৭০৮, বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. কামাল উদ্দিন বাদশা ৭ হাজার ৯৭৬ ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য মো. নোমান ওসমানী ১ হাজার ৩৬০ ভোট পেয়ে জামানত হারাচ্ছেন।

এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ প্রার্থী ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ প্রার্থীর কেউ জামানত হারাচ্ছেন না।

ইত্তেফাক/এসজেড