বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

আমার মেয়ে যা করেছে বেশ করেছে: কঙ্গনাকে চড় মারার ঘটনায় নারী কনস্টেবলের মা

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ১৭:৪৪

ভারতের চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে নবনির্বাচিত বিজেপি সংসদ সদস্য কঙ্গনা রনৌতকে চড় মারার ঘটনায় চলছে তীব্র সমালোচনা। এমন ঘটনার পর সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সের (সিআইএসএফ) কনস্টেবল পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে কুলবিন্দর কৌর নামের ওই নারীকে। এবার মেয়ের এমন কাণ্ডে মুখ খুললেন অভিযুক্ত কুলবিন্দর কৌরের মা।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিযুক্তর মা বীর কৌর বলেন, ‘আমার মেয়ে যেটা করেছে ঠিক করেছে।’ সিআইএসএফ কনস্টেবলের মা বীর কৌর নিজেই পাঞ্জাবে হওয়া কৃষক আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

তবে শুধু মা বীর কৌর নন, এ ঘটনায় মুখ খুলেছেন অভিযুক্ত কুলবিন্দরের দাদা শের সিং মাহিভাল। তিনি বলেন, ‘আমি সংবাদমাধ্যমের সাহায্যেই চণ্ডীগড় বিমানবন্দরের ওই ঘটনার কথা জানতে পেরেছি। 

বুঝেছি যে কঙ্গনার মোবাইল এবং পার্স চেক করার সময় এ ঘটনাটি ঘটেছে। তর্কবিতর্কের পর আমার বোন আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিল, যে কারণে ঘটনাটা ঘটেছে। সেনা এবং কৃষক, দুপক্ষই তাদের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে। এই বিষয়ে আমরা আমার বোনকে পূর্ণ সমর্থন করছি।’

কৃষকদের ‘খলিস্তানি’ এবং ‘সন্ত্রাসবাদ’ আখ্যা দিয়ে বিতর্কিত হন কঙ্গনাকৃষকদের ‘খলিস্তানি’ এবং ‘সন্ত্রাসবাদ’ আখ্যা দিয়ে বিতর্কিত হন কঙ্গনা
এদিকে এই ঘটনায় ওই নারী সিআইএসএফ কনস্টেবলের পাশে দাঁড়িয়েছে কৃষক সংগঠন। 

তাদের পক্ষ থেকে পুরো ঘটনাটি সঠিকভাবে তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে। কুলবিন্দর কৌর দাবি করেছিলেন যে তিনি কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লি সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভে নারীদের যোগদানের বিষয়ে তার মন্তব্যের জন্য রানাউতের ওপর বিরক্ত ছিলেন।

সিআইএসএফও এ ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। মোহালি পুলিশের এসএইচও (বিমানবন্দর) পরিদর্শক পেরিউইঙ্কেল গ্রেওয়াল জানিয়েছেন, বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। 

 

ইত্তেফাক/পিএস