শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নাজিরপুরে সরকারি খাল দখলের অভিযোগ, বিপাকে চাষিরা  

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ১৯:৫১

চোখে দেখে মনে হবে না—এটি একটি খাল। মনে হয়, ময়লা-আবর্জনার ফেলার স্থান। পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার সরকারি বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহাবিদ্যালয় ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন সরকারি রেকর্ডভুক্ত একটি খালের চিত্র এটি। 

অভিযোগ উঠেছে, অবৈধ দখলদাররা খালটি দখল করে বহুতল ভবন নির্মান করে চলছেন। ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে খালের এ হাল বানাচ্ছেন একটি প্রভাবশালী মহল। অন্যদিকে ময়লা-আবর্জনা ফেলে খালটি ভাগাড়ে পরিণত করেছে কিছু লোকজন। কয়েকদফা অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদের কথা বললেও এ নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের তেমন কোনো কার্যকরী ভূমিকা দেখা যাচ্ছে না। 

প্রান্তিক কৃষক বিনয় হালদার বলেন, ‘হাসপাতালের ড্রেনের ময়লা পানি দিয়ে ধানচাষ করছি এবছর। ইউএনওর কাছে অভিযোগ দিয়েও কোনো সুফল পাইনি। আমরা এ খাল দিয়ে নৌকায় করে ধান নিয়ে যাতায়াত করতাম একসময়। বর্তমানে কয়েকজন দখলদার খালটি দখল করে প্রায় নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছে। এতে বিপদে আছি আমরা কৃষকরা।’ 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হরষিত ওঝা খালের একটি অংশ দখল করে পাকা ভবন তুলছেন। মনতোষ বাড়ৈ, সুশেন হালদার, বিশ্বজিৎ মন্ডল, নমিতা রানি, টুটুল হালদার, অজিৎ সিকদার, অসিতবরণ রায়, হাজী সলেমানসহ আরও অনেকে খাল দখল করে বসতবাড়ি তৈরি করছেন। 

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাছুম বিল্লাহ্ বলেন, ‘অবৈধ খাল দখলের বিষয়টি ইতোমধ্যে আমাদের নোটিশে এসেছে। আমরা এ বিষয়টি সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। মনে হচ্ছে, বিষয়টি খুবই উদ্বেগজনক। বিষয়টি আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখছি। কে কতটুকু খাল দখল করেছে—তার তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছি। সংগ্রহ শেষে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে তার নির্দেশনা মতো ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’    

ইত্তেফাক/ডিডি