মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

জেলেদের নগদ সহায়তা ও বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৫৮

ইত্তেফাক রিপোর্ট

মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞার সময় জেলেদের জন্য নগদ আর্থিক সহায়তা ও বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়ে সেমিনারে বক্তারা বলেছেন, এ সময় জেলেদের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হয়। তারা বলেন, সরকার প্রতি মাসে নিবন্ধিত প্রায় ৪ লাখ জেলেকে ৪০ কেজি করে চাল দিলেও অনেক জেলে এখনো নিবন্ধনের বাইরে রয়ে গেছে। গতকাল শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত ‘বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরায় ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা : উপকূলীয় প্রান্তিক জেলেদের ওপর প্রভাব পর্যালোচনা’ শীর্ষক ঐ সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্ট ও বাংলাদেশ মত্স্য শ্রমিক জোটের উদ্যোগে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, বিশ্বের অনেক দেশে ইলিশের উত্পাদন কমলেও বাংলাদেশে বাড়ছে। এ উত্পাদন আরো বাড়াতে বঙ্গোসাগরকে নিরাপদ-দূষণমুক্ত রাখতে হবে।

কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মত্স্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কোস্ট ট্রাস্টের সহকারী পরিচালক মজিবুল হক মনির। আরো বক্তব্য রাখেন মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম, মত্স্য অধিদপ্তরের পরিচালক ড. মো. আবু হাসনাত, কক্সবাজার মত্স্য শ্রমিক জোট নেতা মিজানুর রহমান বাহাদুর, ভোলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম প্রমুখ।