ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
২৪ °সে

জাবালে নূরের মতো ঢাকার কোনো রুটে চলবে না সু-প্রভাত!

জাবালে নূরের মতো ঢাকার কোনো রুটে চলবে না সু-প্রভাত!
যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর বসুন্ধরা গেট এলাকায় বাস চাপায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় রাস্তা অবরোধ করে অবস্থান নেওয়া শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক উল্লেখ করে ঢাকার কোনো রুটেই সু-প্রভাত বাস চলবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে দুর্ঘটনার পর শিক্ষার্থীরা অবস্থান নিলে ঘটনাস্থলে যান মেয়র। সেখানে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় বিইউপির অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী মেয়রের সঙ্গে কথা বলেন এবং লিখিতভাবে ১২ দফা দাবি পেশ করেন তার কাছে।

মেয়র বলেন, 'শিক্ষার্থীরা দাবি জানিয়েছে সু-প্রভাত বাস রাস্তায় না চালাতে। আমি বলতে চাই, রাজধানী ঢাকার কোনো রুটেই সু-প্রভাত বাস চলবে না। আমি ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্টদের বলেছি, সু-প্রভাতের লাইসেন্স বাতিল করতে হবে। ঢাকায় সু-প্রভাত চলবে না। সেই সঙ্গে চেকিং-কন্ট্রাক্ট সিস্টেম বাতিল করতে হবে'। এছাড়াও সকালে সেখানে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) নিহত শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর নামে প্রগতি সরণিতে সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন মেয়র।

তিনি আরও বলেন, 'আগামী দুই কিংবা সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে এই জায়গায় আবরার চৌধুরীর নামে ফুটওভার ব্রিজ করে দেব। আপনারা আমাকে একটু সময় দেন। এ ঘটনায় আপনাদের মধ্য থেকে দুই থেকে পাঁচজনকে নিয়ে আমরা একটি কমিটি গঠন করব। আপনাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে আলোচনা করব। আমি পর্যায়ক্রমে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় নির্দিষ্ট স্থানে বাস থামানোর জন্য পার্কিং করে দেব। এ ধরনের সড়ক দুর্ঘটনা রোধে বাসের মালিকদের সংযুক্ত করা হবে, এছাড়া সড়কে শৃঙ্খলা আনা সম্ভব নয়। এ কাজটি আমরা দ্রুত করব। সড়কসংশ্লিষ্ট যতগুলো সমস্যা রয়েছে সেগুলো সমাধানে তোমরা আমাদের সঙ্গে থাকো। আমরা একটি একটি করে সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধানে কাজ করব'।

শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় আটক বাসচালক সিরাজুলের (২৯) বিচারের বিষয়ে তিনি বলেন, 'চালকের বিচার করতেই হবে। দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী তার সর্বোচ্চ বিচার হবে'।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টায় রাজধানীর বসুন্ধরা গেট এলাকায় জেব্রা ক্রসিংয়ের উপর সুপ্রভাত বাসের ধাক্কায় নিহত হন আবরার আহমেদ নামে বিইউপির এক শিক্ষার্থী। এই ঘটনায় ৮ দফা দাবিতে বসুন্ধরা আবাসিক গেট এলাকায় রাস্তা অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এর ফলে বিমানবন্দর থেকে বিশ্বরোড ও বাড্ডা হয়ে রামপুরা এবং গুলিস্তান রুটের সকল যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে ঘটনাস্থলে যান ঢাকা উত্তরের নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম। তিনি শিক্ষার্থীদের শান্ত হতে বলেন এবং আগামী দুই মাসের মধ্যেই ঘটনাস্থলে একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের আশ্বাস দেন। তবে তার আশ্বাস উপেক্ষা করে সেখানে অবস্থান অব্যাহত রেখেছেন শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন: প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে জেব্রা ক্রসিংয়ে আবরারকে চাপা

উল্লেখ্য, গত বছরে রাজধানীর কুর্মিটোলায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে নামে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সে সময় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে জাবালে নূরের লাইসেন্স বাতিল এবং সব রুটে এই বাস নিষিদ্ধের কথা জানায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবে আন্দোলনের পর মাত্র কয়েকদিন বন্ধ থেকেই আবারও রাস্তায় চলা শুরু করে জাবালে নূর। একইভাবে মঙ্গলবার সকালে জেব্রা ক্রসিংয়ে শিক্ষার্থীকে বাস চাপার ঘটনায় সু-প্রভাত বাস বন্ধ ও এর লাইসেন্স বাতিলের ঘোষণা দেন নবনির্বাচিত মেয়র।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন