অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন সাজা চাইল রাষ্ট্রপক্ষ

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন সাজা চাইল রাষ্ট্রপক্ষ
র‌্যাবের হাতে আটক আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ।

অস্ত্র আইনের মামলায় রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ করিমের সর্বোচ্চ শাস্তির আবেদন জানিয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ। বৃহস্পতিবার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের প্রথম দিনে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা আদালতে এই আবেদন করেন।

আইনজীবীরা আদালতে বলেন, জব্দকৃত এক রাউন্ড গুলিভর্তি অবৈধ রিভলবারটি আসামি সাহেদের। তার গাড়ির ভেতর থেকে এই অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাই অস্ত্র আইনে তার সর্বোচ্চ শাস্তি হওয়া দরকার। রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে সাহেদের আইনজীবীরা যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন।

আগামী রবিবার পরবর্তী যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য করেছেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ। এদিকে মামলার শুনানিকালে বিচারকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সাহেদ বলেন, আপনি কারা কর্তৃপক্ষকে বলে দিন যাতে আমাকে একটু ভালো জায়গায় রাখে। বিচারক বলেন, কারাগারে আসামি কোথায় থাকবে সেটা কারাকর্তৃপক্ষের বিষয়। কারাবিধি অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিয়ে থাকেন।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলি অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট তাপস কুমার পাল ইত্তেফাককে বলেন, অস্ত্র আইনের ১৯(ক) ধারায় সাহেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। ওই ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন দণ্ডের কথা বলা হয়েছে।

আরো পড়ুন : পেঁয়াজ আমদানির এলসিতে সুদ ৯ শতাংশের বেশি নয়

গত ১৫ জুলাই সাতক্ষীরার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে সাহেদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে হেলিকপ্টারে করে তাকে ঢাকায় আনা হয়। পরদিন করোনা পরীক্ষার নামে ভুয়া রিপোর্টসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। তাকে নিয়ে অভিযানে যায় ডিবি পুলিশ। পরে তার গাড়ির ভেতর থেকে অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত