এ কোন ভারত?

এ কোন ভারত?
নতুন জার্সিতে কোহলিরা। ছবি : সংগৃহীত

প্রথম থেকেই খবর ছিলো আজ দেখা যাবে নতুন ভারতকে! নতুন বলতে দলে থাকবেন কোহলি-ধোনিরাই, কিন্তু তাদের শরীরে থাকবে নতুন জার্সি। মাঠে নেমে সেই জার্সির খোলসেই হারিয়ে গেলেন বুমরাহ-চাহাল-কুলদীপরা। বিশ্বের সেরা বোলিং লাইনআপ কিংবা সেরা দলটির বিপক্ষে যেভাবে খেলছেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা তাতে মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে এ কোন ভারত? কোথায় কোহলির আগ্রাসী আচরণ? কোথায় মাহেন্দ্র সিং ধোনির বিচক্ষণতা। তবে কি গেরুয়া রঙের জার্সির মতোই বদলে গেল ভারতও? সত্যিই এ এক নতুন ভারত।

আজ রবিবার ইংল্যান্ডের বার্মিহ্যামে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও ইংল্যান্ড। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চরম পিটাতে থাকেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো। জেসন রয় যখন আউট হন, তখন ২২ ওভার ১ বল খেলে ভারতের সংগ্রহ ১৬০ রান! ৩০ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ২০২/১।

অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ভারতের সেমিফাইনাল খেলা মোটামুটি নিশ্চিত। এখন লড়াই চলছে পয়েন্ট টেবিলের চতুর্থ দল হওয়ার। আর সেই দৌড়ে বেশ ভালোভাবেই টিকে আছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। কিন্তু শর্ত এই, ইংল্যান্ডকে তাদের শেষ দুই ম্যাচে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের কাছে হারতে হবে। ইংল্যান্ড যদি দুইটা ম্যাচ জিতে যায় তাহলে তাদের পয়েন্ট হবে ১২। সেক্ষেত্রে কোনো হিসাব নিকাশ ছাড়াই চলে যাবে সেমিফাইনালে। কারণ পাকিস্তান তাদের শেষ ম্যাচে জিতলে হবে ১১ পয়েন্ট, বাংলাদেশ শেষ দুই ম্যাচে জিতলে হবে ১১ পয়েন্ট এবং শ্রীলঙ্কা দুই ম্যাচ থেকে জিতলে হবে ১০ পয়েন্টের মালিক। কেউই তাদের সবগুলো জয় দিয়েও ইংল্যান্ডের পয়েন্টের সমান হবে না। আজ ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ড হারলেই সমীকরণ সহজ হবে উপমহাদেশের দলগুলোর। তখন লক্ষ্য এসে থামবে ১০ পয়েন্টে। সেক্ষেত্রে ভালোভাবেই লড়াইয়ে থাকবে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। আর রান রেটের ক্ষীণ সম্ভাবনা নিয়ে আশা থাকবে শ্রীলঙ্কারও। আর এ কারণেই আজ পুরো এশিয়ার সমর্থন নিয়ে খেলছে বিরাট কোহলিরা। আর এমন দিনেই খুঁজে পাওয়া গেল না ভারতকে।

ইত্তেফাক/এএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত