ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
৩৫ °সে


নতুন মজুরি কাঠামো পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত

নতুন মজুরি কাঠামো পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত
শ্রমিক বিক্ষোভ। ছবি: ফোকাস বাংলা

বেতন বৈষম্যের অভিযোগ তুলে টানা তৃতীয় দিনের মতো সাভারে শ্রমিক বিক্ষোভ হয়। এই বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে ঘোষিত নতুন মজুরি কাঠামো পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এক মাসের মধ্যে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি শ্রমিকদের কাজে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার শ্রম ভবনে মালিক ও শ্রমিক পক্ষের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্তের কথা জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে ৫ জন করে সদস্য নিয়ে পর্যালোচনা কমিটি গঠন করা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মজুরি নিয়ে কোনো সমস্যা থাকলে তা আলোচনা করে এক মাসের মধ্যেই সমাধান করা হবে। নতুন গ্যাজেটে কেউ যদি বেতন কম পেয়ে থাকে তা চলতি মাসের বেতনের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। চলতি মাসের বেতনের সঙ্গে সেই টাকা পরিশোধ করা হবে। জানুয়ারি মাসে কোনো শ্রমিককে কম বেতন দেওয়া হবে না। সমস্যা সমাধানে কাজ করবে মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটি।

সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, যারা ধ্বংসাত্মক কাজ করেছে, তারা শ্রমিক না। তারা এই ট্রেডের বন্ধু না। মালিক-শ্রমিক একটা বাই সাইকেলের দুই চাকা। তাদেরকে এক সঙ্গেই এগোতে হবে।

শ্রমিকদের গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকদের বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। গুজব, উসকানি ছড়ানো হচ্ছে। তাই কোনো রকম গুজব কিংবা উসকানিতে পা দেবেন না। আজকের পর থেকে ইন্ডাস্ট্রিবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ড করলে তা কঠোর হাতে দমন করা হবে।

শ্রম ভবনে বৈঠক। ছবি: ফোকাস বাংলা

টিপু মুনশি বলেন, সাইবার ক্রাইম শুরু হয়ে গেছে। বিভিন্ন রকম প্রচারপত্র বিতরণ করা হচ্ছে অনলাইনে। প্রত্যেকটা ঘটনার ক্ষেত্রে এই ধরনের অপকর্ম ঘটেছে। এসব কর্মকাণ্ড সম্পর্কে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

বেতন বৈষম্যের অভিযোগ তুলে রবিবার থেকে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেন শ্রমিকরা। রাজধানীর উত্তরা, সাভারসহ বিভিন্ন শিল্পাঞ্চলে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কাজে যোগ না দিয়ে বিক্ষোভ, কর্মবিরতি, সড়ক অবরোধ ও সড়কে অগ্নিসংযোগ করেন। মঙ্গলবারও হয় এই বিক্ষোভ। এতে করে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং গুলির ঘটনা ঘটে।

সবশেষ সাভার পৌর এলাকার আনলিমা ডাইং লি. এর এক শ্রমিক নিহতের খবর পাওয়া যায়। নিহত শ্রমিকের নাম মো. সুমন খাঁ (২৩)। তিনি শেরপুর জেলার শ্রীপদী থানার কলাকান্দা গ্রামের আমির আলী খাঁর ছেলে। এছাড়া সংঘর্ষে শ্রমিক ও পুলিশসহ আহত হয়েছেন প্রায় ৫০ জন।

সাভার ট্যানারি ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক গোলাম নবী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকাল থেকেই শ্রমিকরা বিক্ষোভ করে সড়কের অবস্থান নিয়ে অবরোধের চেষ্টা করে। পুলিশ তাদেরকে বাধা দিলে কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুরো শিল্প এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে রাখা হয়েছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৩ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন