সবচেয়ে লাইক পাওয়া ও শেয়ার হওয়া কিছু ছবি

ফিরে দেখা ২০২০
সবচেয়ে লাইক পাওয়া ও শেয়ার হওয়া কিছু ছবি
ছবি: দৈনিক ইত্তেফাক

করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত মহাবিশ্ব। মরণঘাতী এই ভাইরাসে সারাবিশ্বে লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। তাই শেষ হতে যাওয়া ২০২০ সাল ইতিহাসে যেনো একটি দু:খজনক অধ্যায়। করোনায় পৃথিবীর মতো স্থবির হয়ে যায় বাংলাদেশও। মহামারিতে মৃত্যু, লকডাউন ও অর্থনৈতিক স্থবিরতার মধ্যে দৈনিক ইত্তেফাকের ফটোসাংবাদিকদের ক্যামেরায় ধরা পড়ে সমাজ ও মানুষের জীবনচিত্র। ক্যামেরায় ধরা পড়া এসব ছবি ইত্তেফাকের অফিসিয়াল সোশ্যাল সাইট পেজে প্রকাশিত হলে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করে পাঠকরা। ২০২০ সালে সবচেয়ে বেশি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার হয়েছে এমন ১০ টি ছবি পাঠকের জন্য তুলে ধরা হলো-

১. প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে রাখা ফেস্টুনের ছবি

গত ২৮ সেপ্টেম্বর ছিলো আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন। স্মার্টফোন বা উন্নত কোন ফোন নয়, খুবই সাধারণ একটা ফোন দিয়ে জন্মদিন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে রাখা ফেস্টুনের ছবি তুলেন রিকশাচালক আব্দুল লতিফ। ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ছবি: আব্দুল গনি।

২.শিশু হাসপাতালে স্বজনদের বিড়ম্বনা

দূর-দূরান্ত থেকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হলেও রোগীর সাথে আসা স্বজনদের রাতের বেলা থাকতে হয় হাসপাতালের বাইরে খোলা জায়গায়। তবে সেখানে নেই কোন স্বাস্থ্যবিধির বালাই। এরপর দিনের বেলা তারা আবার রোগীর কাছে যান। আর এতে করোনা আক্রান্তের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। ছবি: আব্দুল গনি।

৩. অগ্নিদগ্ধ ছেলের জন্য বাবার কান্না

মসজিদে দগ্ধ ছেলে ইমাম হোসেনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তির পর গ্রিলের বাইরে বোনের সঙ্গে কথা বলার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন বাবা আলাউদ্দিন শেখ। ছবি: আব্দুল গনি।

৪.পদ্মায় ভেঙে যাওয়া মসজিদে নামাজ আদায়

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের হলদিয়া গ্রামে পদ্মার তীব্র স্রোতে বিলীন হয়ে গেছে মসজিদের একাংশ। সেই মসজিদেই জুমার নামাজ আদায় করছেন মুসল্লিরা। ছবি: আব্দুল গনি।

৫. রাজধানীতে বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা

রাজধানীতে মুষলধারে চলে বৃষ্টি। মতিঝিলের নটরডেম কলেজের সামনে বৃষ্টিতে রাস্তায় জমে থাকা পানিতে আনন্দে মেতেছে এক পথশিশু। ছবি: আব্দুল গনি

৬. নারী রিকশাচালক

বড় মেয়ে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে, ছোট মেয়ের বয়স দুই বছর আর ছেলে পড়ে মাদ্রাসায়। সব খরচই বহন করতে হয় রাজধানীর সংগ্রামী নারী রিকশাচালক মা রাহেলার। স্বামী দেখভাল করেন না সন্তানদের। তাই সংসারের বোঝা নিজেই নিয়েছেন কাঁধে। রাহেলার এই দুঃসাহসী কাজের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় নর্থ বেঙ্গল সাইকেল ইন্ডাস্ট্রি লি.। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে তাকে উপহার দেওয়া হয়েছে একটি নতুন রিকশা। ছবি: আব্দুল গনি।

৭. করোনা পরীক্ষার ফলের জন্য মা ও সন্তানের অপেক্ষা

মেহেদী হাসান আকাশ পড়াশোনা করতে করতে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে মা মর্জিনা বেগম তাকে ভর্তির জন্য নিয়ে গিয়েছিলেন মানসিক হাসপাতালে। আকাশের শরীরে জ্বর থাকায় তাকে ভর্তি না করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল থেকে রক্ত পরীক্ষা করিয়ে আনতে বলেন। পরীক্ষা করালেও মেলেনি পরীক্ষার ফল। ঢাকায় কোন আত্মীয়স্বজন না থাকায় বাধ্য হয়ে ছেলেকে নিয়ে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের বারান্দায় অবস্থান করেন। ছবি: আব্দুল গনি।

৮. করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে মাকে ফেলে যায় সন্তান

করোনা আক্রান্ত সন্দেহে মাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের গেটের সামনে ফেলে যায় সন্তান। ফেলে যাওয়া মায়ের নাম মনোয়ারা বেগম। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে খবর পেয়ে হাসপাতাল ক্যাম্পের পুলিশ তাকে ঢামেকের করোনা ইউনিটে ভর্তি করে। ছবি: আব্দুল গনি।

৯.করোনায় জনশূন্য রাজধানী

করোনা ভাইরাস মহামারিতে লকডাউন ঘোষণার পর জনশূন্য হয়ে পড়ে রাজধানী। করোনা সংক্রামণ থেকে রক্ষা পেতে রাজধানীর বাসিন্দারা নিজ বাসা-বাড়িতে অবস্থান করে। যার ফলে রাস্তা-ঘাট জনশূন্য হয়ে পড়ে। ছবি: আব্দুল গনি

১০. দ্রুত গতিতে নির্মাণ কাজ এগিয়ে যাওয়া পদ্মাসেতু

বেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ । হেলিকপ্টার থেকে তোলা ছবিতে ধরা পড়ে সেতুর এই কর্মযজ্ঞ। ছবি: সামসুল হায়দার বাদশা।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x