রিমান্ড শেষে সাতক্ষীরা কারাগারে সাহেদ

রিমান্ড শেষে সাতক্ষীরা কারাগারে সাহেদ
রিমান্ড শেষে সাতক্ষীরা কারাগারে সাহেদ।ছবি: সংগৃহীত

সাতক্ষীরার দেবহাটা থানার অস্ত্র মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতের নির্দেশে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ করিমকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (৫ আগস্ট) বেলা ১১ টা ৪১ মিনিটে এই আদেশ দেন বলে আদালত পরিদর্শক অমল কুমার রায় জানিয়েছেন। এর আগে সকালে র‌্যাব তাকে খুলনা থেকে নিয়ে আসে।

সাহেদ করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় প্রতারণা ও জালিয়াতি মামলার প্রধান আসামি। গত ১৬ জুলাই ভোরে র‌্যাব তাকে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার শাখরা কোমরপুর গ্রামের লাবণ্যবতী নদীর ব্রিজের নিচ থেকে বোরকা পরা অবস্থায় একটি অবৈধ অস্ত্রসহ করা হয়। সাহেদ ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন।

পরে তার বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় অস্ত্র আইনে মামলা করে র‌্যাব। এ মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত ২৬ জুলাই ১০ দিনের হেফাজতে পায় র‌্যাব। সাহেদের বিরুদ্ধে ঢাকায়ও একটি অস্ত্র মামলা রয়েছে। সেই মামলায় তার বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে গত ৩০ জুলাই অভিযোগপত্র দিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

আরও পড়ুন: বৈরুতের বিস্ফোরণে ৩ বাংলাদেশি নিহত

সেই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক মো. সাইরুল ইসলাম বলেন, ‘অস্ত্র আইনের ১৯ (এ) ধারায় এই অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। এই ধারায় দোষী সাব্যস্ত হলে সবোর্চ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে।’

রিজেন্ট হাসপাতালে কোভিড-১৯ পরীক্ষা নিয়ে প্রতারণার মামলায় সাহেদ পুলিশের কাছে রিমান্ডে থাকার সময় গত ১৮ জুলাই অবৈধ অস্ত্র রাখার কথা স্বীকার করেন। পরে ঢাকার উত্তরায় তার একটি গাড়ি থেকে এক রাউন্ড গুলিসহ একটি পিস্তল ও কিছু মাদক উদ্ধার করে পুলিশ।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত