ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩১ °সে


সারাদেশে তাপদাহ, মে মাসে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা

সারাদেশে তাপদাহ, মে মাসে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা
প্রচণ্ড গরমে মানুষ তথা প্রাণিকুলের যখন ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা তখন নদী-জলাশয়ের চেয়ে স্বস্তির জায়গা আর কী হতে পারে। নির্মল হাসিভরা মা-ছেলের পানি খেলা এভাবেই ধরা পড়ে আমাদের আলোকচিত্রী সামসুল হায়দার বাদশার ক্যামেরায়

ঢাকাসহ দেশের অধিকাংশ স্থানে বইছে তাপদাহ। নেই বৃষ্টির দেখা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে সূর্যের তেজ। প্রকৃতির এমন বিরূপ আচরণে অতিষ্ঠ মানুষ। এ অবস্থা আরো দু’একদিন অব্যাহত থাকবে। এ সময়ে তাপমাত্রা আরো বৃদ্ধি পেতে পারে। এ ছাড়া, মে মাসে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হতে পারে নিম্নচাপ, যেটা শক্তিশালী হয়ে রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড়ে। ইতোমধ্যে মৌসুমের স্বাভাবিক লুঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এমন আভাস আবহাওয়া অধিদপ্তরের।

অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এ সময়ে আবহাওয়ার এমন আচরণ স্বাভাবিক। একদিকে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে, আবার বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা কমে আসবে। যেহেতু গত কয়েক দিন বৃষ্টির দেখা মিলছে না, সেহেতু তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়ে তাপদাহের সৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সীতাকুণ্ডে ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় তাপমাত্রা উঠেছে ৩৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ১৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আজ বৃহস্পতিবার অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, রাজশাহী, পাবনা ও সৈয়দপুর অঞ্চলসহ চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা ও সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

আরো পড়ুন : বিরতিহীন ‘বনলতা’র আজ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি মাসে দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি তীব্র তাপপ্রবাহ এবং অন্যত্র ১-২টি মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আর মে মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। এ মাসে বঙ্গোপসাগরে ১-২টি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে এবং এর মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। মাসের প্রথম সপ্তাহের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে। এ ছাড়া, দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ২-৩ দিন মাঝারি/তীব্র বজ্রঝড় (কালবৈশাখী) ও দেশের অন্যত্র ৩-৪ দিন হালকা/মাঝারি/বজ্রঝড় (কালবৈশাখী) হতে পারে। মে মাসে দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ১-২টি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে অধিদপ্তর।

ইত্তেফাক/ইউবি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন