ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৫ °সে

ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা সফল হবে না: তথ্যমন্ত্রী

ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা সফল হবে না: তথ্যমন্ত্রী
সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাণ্ডে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে। একই সঙ্গে এ মর্মান্তিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে টেলিভিশন শিল্পী, কলা-কুশলী, নাট্যকার, অনুষ্ঠান নির্মাতাদের সম্মিলিত সংগঠন এফটিপিও (ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশন)-এর সঙ্গে মতবিনিময় শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমত এ হত্যাকাণ্ড প্রচণ্ড ন্যক্কারজনক, অনভিপ্রেত। আমরা প্রথম থেকেই এটির তীব্র নিন্দা জানিয়েছি। এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় শুরুতেই কেউ দাবি তোলার আগেই সন্দেহভাজন সবাইকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যারা এই ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হবে তারা যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায়, সেজন্য সরকার বদ্ধপরিকর।’

আরো পড়ুন: ভালো আছেন সম্রাট, রিমান্ড শুনানি ১৫ অক্টোবর

দেশে অবশ্যই ভিন্নমত থাকবে, ভিন্নমত ছাড়া একটি গণতান্ত্রিক সমাজ হতে পারে না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘ভিন্নমত থাকবে, সমালোচনাও থাকবে। সমালোচনার জবাব সমালোচনার মাধ্যমে হয়। ভিন্নমতের জবাব নিজের মত প্রকাশের মাধ্যমে হয়। ভিন্নমতের জবাব কোনোভাবেই আক্রমণ করে হতে পারে না। এটি আমাদের সরকার সমর্থন করে না, আমাদের দলও সমর্থন করে না। এ জন্য এটির সঙ্গে প্রাথমিকভাবে যাদের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে, ইতিমধ্যে ছাত্রলীগ তাদের বহিষ্কার করেছে এবং তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তারা যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায়, সেজন্য সরকার বদ্ধপরিকর।’

হত্যাকাণ্ড নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়ানোর বিষয়ে সাংবাদিকরা মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, ‘আমরা দেখেছি দেশে কোনো ঘটনা ঘটলে একটি মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা করে। এখনও সেই চেষ্টা হচ্ছে। কেউ এই ঘটনাকে পুঁজি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করবে সেটি হতে দেওয়া যাবে না।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সঠিক তথ্য প্রচার করবে এবং এই ঘটনার নিন্দাও হবে, নিন্দা হওয়া উচিত। কিন্তু এই ঘটনাকে পুঁজি করে অপপ্রচার করা কোনোভাবেই সমীচীন নয়। অতীতেও যারা এভাবে অপপ্রচার করেছে, এ ধরণের কিছু ছড়িয়েছে সেটির বিরুদ্ধে কিন্তু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রেও কেউ যদি ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায় সে চেষ্টা সফল হবে না।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন-তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান, সচিব আবদুল মালেক, অতিরিক্ত সচিব নূরুল করিম এবং এফটিপিও আহ্বায়ক মামুনুর রশীদসহ প্রতিনিধিবৃন্দ।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১২ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন