ঢাকা বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬
৩২ °সে


জেলে পাড়ায় নিরপরাধদের আর হয়রানি করবে না পুলিশ

জেলে পাড়ায় নিরপরাধদের আর হয়রানি করবে না পুলিশ
সীতাকুণ্ডে জেলেদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় বৃহস্পতিবার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: ইত্তেফাক

সীতাকুণ্ডে জেলে পাড়ায় পুলিশ ও জেলেদের সংঘর্ষের ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জেলেপাড়ায় শান্তিপূর্ণ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে পুলিশের পক্ষ থেকে অঙ্গিকার করা হয়, নিরপরাধ জনগণকে পুলিশ আর হয়রানি করবে না। গত ২০ মে এক নিরপরাধ যুবকে আটক করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে জেলেদের সংঘর্ষ বাধে।

ওই ঘটনায় আটক হওয়া ১১ জনকে জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা জামিনে মুক্ত করেছেন। ওই ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার কারণে সাসপেন্ড করা হয়েছে এসআই এবাদুল্লাহ ও সাইফুল্লাহকে।

হিন্দু ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও জেলে সম্প্রদায়কে নিয়ে সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিমল কান্তি নাথ। সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন দাশের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সীতাকুণ্ড সার্কেল) শম্পা রানী সাহা, মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. দেলওয়ার হোসেন, কুমিরা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো. মোরশেদ হোসেন চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্যামল কান্তি নাথ, উপজেলা সেক্রেটারি স্বপন বনিক, জেলেদের পক্ষে খোকন দাশ প্রমুখ। সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায় আতংকে পালিয়ে থাকা জেলে সম্প্রদায়ের পুরুষদের ঘরে ফিরে এসে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করার জন্য আহ্বান জানান। পাশাপাশি এ ঘটনায় দায়ী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

আরও পড়ুন: ভারত আবারও জয়ী হলো: নরেন্দ্র মোদি

পুলিশ সুপার শম্পা রানী সাহা বলেন, কোনো পুলিশ সদস্য অন্যায় ভাবে হয়রানি করলে সরাসরি আমাকে অবগত করুন। মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দেলওয়ার হোসেন বলেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পুঁজি করে এক শ্রেণির লোক তাদের ব্যবহার করে। তবে আমরা নিরপরাধ কাউকে আটক বা হয়রানি করবো না।

জেলেরা বলেন, পুলিশের সোর্স শাহাবউদ্দীন, শাহাজান, ইব্রাহিম, বশর ভুল তথ্য দিয়ে গত ২০ মে অনাকাংখিত ঘটনাটি ঘটায়।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন