ঢাকা সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬
২৮ °সে


আদালতে তানভীরের স্বীকারোক্তি: ক্ষোভ থেকেই হত্যা

আদালতে তানভীরের স্বীকারোক্তি: ক্ষোভ থেকেই হত্যা
আবিদা সুলতানার মসজিদে নিয়োগ পাওয়া ইমাম তানভীর তাকে ক্ষোভের কারণে হত্যা করেছিলেন। ছবি: ইত্তেফাক
মৌলভীবাজারের বড়লেখায় আইনজীবী আবিদা সুলতানাকে (৩৫) হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মসজিদের ইমাম তানভীর আলম (৩০)। গত শুক্রবার (৩১ মে) বিচারিক হাকিম হরিদাস কুমারের খাস কামরায় ১৬৪ ধারায় তিনি এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে পাঠানোর হয়।

তানভীর সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার ছিল্লারকান্দি গ্রামের ময়নুল ইসলামের ছেলে। চার মাস আগে নিহত আবিদা সুলতানার পারিবারিক মসজিদের ইমাম হিসেবে তিনি চাকরি নেন তানভীর।

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় শনিবার বিকেলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রাশেদুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলন করে স্বীকারোক্তির বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।

আরও পড়ুন: লাগেজ ভর্তি শিশুর টুকরো করা লাশ

পুলিশ জানায়, ইমাম তানভীর হত্যাকাণ্ডের বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছেন। ক্ষোভ থেকে একাই হত্যা করেছেন জানিয়ে তানভীর জবানবন্দিতে বলেছেন, মসজিদের গাছ কাটা ও বিভিন্ন ইস্যুতে ঘটনার দিন আবিদার সঙ্গে তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। তখন পানির ফিল্টারের ঢাকনা সামনে ছিল। ওই ঢাকনা দিয়ে সজোরে মাথায় আঘাত করেন তানভীর। আঘাতে আবিদা অজ্ঞান হয়ে পড়লে মুখ ও গলা কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে হত্যা করে।

উল্লেখ্য রবিবার (২৬ মে) মধ্যরাতে বড়লেখায় ঘরের ভেতর থেকে নারী আইনজীবী আবিদা সুলতানার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় সোমবার রাতে বড়লেখা থানায় চারজনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা করেন আবিদার স্বামী মো. শরিফুল ইসলাম বসুনিয়া।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন