ফুলপুরে ফারুক হত্যা মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ফুলপুরে ফারুক হত্যা মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। প্রতীকী ছবি

চলাচলের রাস্তা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জেরে ময়মনসিংহের ফুলপুরে সংঘটিত ওমর ফারুক হত্যাকাণ্ডে পিতা-পুত্রসহ চারজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। উপজেলার ছনধরা ইউনিয়নের বাশাঁটি গ্রামে আইয়ুব আলীর ছেলে ওমর ফারুককে হত্যা করেছিলো সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা।

বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহ অতিরিক্ত দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক মুহাম্মদ নূরুল আমীন বিপ্লব এ আদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো একই এলাকার মৃত কফিল উদ্দিন মেস্তরীর ছেলে শাহজামাল নয়ন (৬২), শাহজামাল নয়নের ছেলে রেজাউল করিম (৩৪), মৃত মিয়া হোসেনের ছেলে আজাহার (৫৭) ও রুহুল বক্সের ছেলে সুলতান (৫২)। আসামিদের মাঝে পিতা শাহজামাল নয়ন ও পুত্র রেজাউল করিম পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, ২০০৭ সালে ৩০ মে সকালে ফুলপুরের ছনধরা ইউনিয়নের বাশাঁটি গ্রামে চলাচলের রাস্তা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জেরে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে আইয়ুব আলীর ছেলে ওমর ফারুককে লাঠি, লাঙ্গলের হাতল দিয়ে আঘাত করে আসামিরা। এ সময় আসামিদের আঘাতে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত হয়ে ওমর ফারুক রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাকে প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে পরদিন তিনি মারা যান।

২০০৭ সালের ১ জুন ফুলপুর থানায় নিহতের বাবা আইউব আলী মামলা করলে পুলিশ ঘটনা তদন্তে আটজনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দেয়। বিচার প্রক্রিয় ও শুনানি শেষে চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয় এবং আদালত তাদের দণ্ড প্রদান করেন। বাকিদের বিরুদ্ধে কোন তথ্য-উপাত্ত প্রমাণিত না হওয়ায় মামলা থেকে অব্যাহতি দেন বিচারক।

আরও পড়ুন: মিঠাপুকুরে রানীপুকুর স্কুল এন্ড কলেজে ৪দিন ধরে ক্লাস বর্জন

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এপিপি মশিউর রহমান ফারুক ও আসামি পক্ষের আইনজীবী মো. আনিসুর রহমান হাতেম মামলা পরিচালনায় ১৫ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্যগ্রহণ ও পর্যালোচনা শেষে অতিরিক্ত দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক মুহাম্মদ নূরুল আমীন বিপ্লব আসামিদের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।

ইত্তেফাক/নূহু

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত