বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭
৩০ °সে

ভোলায় রাস্তায় দই ফেলে প্রতিবাদ

ভোলায় রাস্তায় দই ফেলে প্রতিবাদ
ভোলায় রাস্তায় দই ফেলে বিক্ষোভ করছেন ব্যবসায়ীরা। ছবি: ইত্তেফাক

ভোলায় দুধে ভেজাল দেওয়া ও অতিরিক্ত মূল্য নেওয়ার প্রতিবাদে দুধ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দই ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ রেখে রাস্তায় দই ফেলে বিক্ষোভ করেছে। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের নতুন বাজার চত্বরে এ প্রতিবাদ করেন তারা। এ সময় দই ব্যবসায়ীরা দুধ ব্যবাসায়ীদের কাছে ভেজাল দেওয়া দুধ ফিরিয়ে দিয়ে যায়।

দই ব্যবসায়ীরা জানান, ভোলার মহিষের দইয়ের সারাদেশে সুনাম রয়েছে। কিন্তু ভোলার দুধ ব্যবসায়ীরা বেশী লাভের আসায় মহিষের দুধের সঙ্গে গরুর দুধ ও পানি মিশিয়ে তা আমদের কাছে সরবারহ করে। এতে করে ওই দুধ দিয়ে দই তৈরি করা যায় না। ফলে এই দই বাজারে বিক্রি করা যায় না। দই ব্যবসায়ীরা দিন দিন আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন।

তারা আরও জানান, দুধের বাজার ঠিকমতো মনিটরিং না করায় দুধ ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছেমত দুধের দাম নিচ্ছে। এতে করে দই ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা প্রতারিত হচ্ছে।

আদর্শ দধি ভান্ডারের স্বত্বাধিকারী আব্দুল হাই জানান, রোজা, ঈদ ও বিভিন্ন উৎসবে ভোলার বাজারে দইয়ের চাহিদা বেড়ে যায়। এ সময় দুধ ব্যবসায়ীরা নিম্নমানের দুধ চড়া মূল্যে বিক্রি করে। কিন্তু সঠিক বাজার মনিটরিং না থাকায় এ চড়া মূল্য দীর্ঘদিন ধরে অব্যাহত থাকে। এ সকল দুধ দিয়ে মানসম্মত দইও তৈরী করা যায় না। ফলে ব্যবসায়ীদের আর্থিক ও সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে হয়।

তিনি আরও জানান, কুরবানী ঈদের দশ দিন পেরিয়ে গেলেও ঈদের দোহাই দিয়ে দুধ ব্যবসায়ীরা দুধের চড়া মূল্যে নিচ্ছে।

আরও পড়ুন: রংপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ছাত্রীর মাকে একঘরে করেছে সমাজ!

এ ব্যাপারে ভোলা পৌরসভার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর মো. ফারুক বলেন, 'গত এক মাসে ভোলার দুধের বাজার নিয়ে আমরা কোনো অভিযোগ পাইনি। তবে আজকে দই ব্যবসায়ীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুধের উচ্চ মূল্য ও ভেজাল প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। আমরা দুধের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাব টেস্টের জন্য ঢাকায় প্রেরণ করবো। চূড়ান্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'

ইত্তেফাক/নূহু

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত