ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬
২৮ °সে


সিংড়ায় মিটার চুরির হিড়িক, ফেরত পেতে চোর রেখে যাচ্ছে মোবাইল নম্বর

সিংড়ায় মিটার চুরির হিড়িক, ফেরত পেতে চোর রেখে যাচ্ছে মোবাইল নম্বর
সিংড়ায় মিটার চুরির পর রেখে যাওয়া হচ্ছে চিরকুট। ছবি: ইত্তেফাক

নাটোরের সিংড়া উপজেলায় মিটার চুরির হিড়িক পড়েছে। গত সাত দিনে এ উপজেলায় একটি ট্রান্সফরমার ও দশটি শিল্প মিটার চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরির পর মিটার চোর চিরকুট রেখে যাচ্ছে। তাতে একটি মোবাইল নাম্বার দিয়ে লেখা ‘মিটার পাবে।’ অতঙ্কে চাতাল মালিক, শিল্প গ্রাহক ও সাধারণ গ্রাহক।

জানা গেছে, গত শুক্রবার উপজেলার রামানন্দখাজুরা ইউনিয়নের বসন্তপুরে গভীর নলকূপের বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার চুরি হয়েছে। এদিকে ট্রান্সফরমার চুরি হওয়ায় মাঠের ১৬০ বিঘা জমির সেচ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

সিংড়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা যায়, গত ৫ সেপ্টেম্বর রাতে উপজেলার জামতলী বাজার এলাকার একটি ‘স’ মিল থেকে দুটি মিটার চুরির ঘটনা ঘটে। চুরির পর ‘মিটার পাবে’ একটি কাগজের চিরকুটে মোবাইল নম্বর লিখে রেখে যাওয়া হয়।

পৌর শহরের পাটকোল মহল্লার মা রাইচ মিল, ফরিদা রাইচ মিল, মামুন রাইচ মিল, মায়া রাইচ মিল ও বাসস্ট্যান্ড এলাকার চারটি বরফ মিল ও ‘স’ মিল থেকে একই কায়দায় চিরকুট লিখে রাতের কোনো এক সময় মিটার চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্ত। আর মিটার চুরি যাওয়া স্থান থেকে প্রাপ্ত মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে দশ থেকে পনের হাজার টাকা মোবাইলের মাধ্যমে দিলে চুরির মিটার ফেরত দেওয়া হবে বলে জানানো হচ্ছে।

বিষয়টি সম্পর্কে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ জানান, তাদের কিছুই করার নেই। আর মিটারের সমপরিমাণ টাকা জমা দিলেই লাগানো হবে নতুন মিটার।

জানা গেছে, অনেকেই চিরকুটে লেখা বিকাশ নম্বরে টাকা দিয়ে মিটার ফেরতও পাচ্ছেন।

আরও পড়ুন: রুয়েটের পঞ্চম সমাবর্তন ১ ডিসেম্বর

নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সিংড়া জোনাল অফিসের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) মিজানুর রহমান বলেন, আমরা খুবই উদ্বিগ্ন। এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের পক্ষ থেকে সিংড়া থানায় একটি লিখিত এফআইআর করা হয়েছে।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখছি। চোর ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন