ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
২৪ °সে

ফিরিয়ে আনা হলো ক্রাইস্টচার্চ হামলায় নিহত ভারতীয় ছাত্রীর লাশ

ফিরিয়ে আনা হলো ক্রাইস্টচার্চ হামলায় নিহত ভারতীয় ছাত্রীর লাশ
গত ১৫ মার্চের হামলায় ৫০ জন মুসল্লি নিহত হন। ছবি: সংগৃহীত।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ভারতীয় ছাত্রীর লাশ সোমবার দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

২৫ বছর বয়সী ভারতীয় এ ছাত্রীর নাম আনসি আলিবাভা। ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডে শ্বেতাঙ্গবাদী চরমপন্থীর হামলায় তিনি নিহত হন। এই জঘন্য ও বর্বরোচিত হামলায় এ ছাত্রীসহ অন্তত পাঁচ ভারতীয় নাগরিক নিহত হয়েছেন।

এএফপি’র এক ফটোগ্রাফার বলেন, সোমবার ভোরে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় কেরালা অঙ্গরাজ্যে কোচির একটি বিমানবন্দরে তার লাশ পৌঁছায়।

নিহতের পরিবারের সদস্যরা তাদের নিজ শহর কোডুঙ্গালুরে তার জানাজার আয়োজন করেছেন। আনসি নিউজিল্যান্ডে মাস্টার্সের ছাত্রী ছিলেন।

অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভুত উগ্রবাদী হামলাকারী হামলা চালানোর সময় আনসি তার স্বামীর সাথে ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে নামাজ পড়ছিলেন। এ বর্বর হামলায় এ মসজিদের ৪৩ মুসল্লি নিহত হন। হামলাকারী পাশের মসজিদে হামলা চালিয়ে আরো সাত জনকে হত্যা করে।

নিউজিল্যান্ডে এর আগে এ ধরনের ভয়াবহ সহিংস রক্তপাতের ঘটনা ঘটেনি।

পাঁচ বছর আগে সৌদি আরবে বাবা মারা যাবার পর কোডুঙ্গালুরের একটি মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নেয়া আনসি তার পরিবারের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন। আনসির বাবা সৌদি আরবে কাজ করতেন।

আনসি ক্রাইস্টচার্চের লিংকন বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি বিষয়ে পড়ার জন্য কয়েক হাজার ডলার ঋণ নেন।

আনসির চাচাত ভাই পি.এইচ. নিয়াজ এএফপি’কে বলেন, শিগগিরই আনসির অধ্যায়ন হতো।

নিয়াজ বলেন, ‘তিনি গত বছর নিউজিল্যান্ড যান। এপ্রিল মাসে তার কোর্স শেষ হওয়ার কথা ছিল। এরপর সেখানে ছয় মাসের একটি ট্রেনিং কোর্স শেষে ডিসেম্বরে আনসির দেশে ফেরার কথা ছিল।’

আনসি লেখাপড়ার পাশাপাশি একটি সুপারমার্কেটে নাজেরের সাথে পার্ট টাইম কাজ করতেন। দুই বছর আগে নাজেরের সাথে আনসির বিয়ে হয়।

১৫ মার্চ তারা আল নূর মসজিদে যান। সেখানে নারী পুরুষদের আলাদা নামাজ পড়ার স্থান রয়েছে। হামলা শুরু হলে নামাজের জরুরি পথ দিয়ে পালাতে সক্ষম হলেও তার স্ত্রীর পালাতে পারেননি।

ইত্তেফাক/এসআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন