বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭
৩২ °সে

‘এমন নির্যাতনের মধ্যে বাঁচার চেয়ে গুলি খেয়ে মরা ভালো’

‘এমন নির্যাতনের মধ্যে বাঁচার চেয়ে গুলি খেয়ে মরা ভালো’
প্রতীকি ছবি

দখলকৃত কাশ্মীরে অন্তত ২৪ জন সাধারণ নাগরিকের উপর নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে ভারতীয় সেনাদের বিপক্ষে। ৫ আগস্টের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ২৪ জন কাশ্মীরি যুবককে ধরে নিয়ে নির্যাতন করেছে ভারতীয় সেনারা। আবিদ খান এদেরই একজন। আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে উঠে এসেছে ২৬ বছর বয়সী এই যুবকের নির্যাতিত হওয়ার এক মর্মস্পর্শী গল্প। জম্মু ও কাশ্মীরের শোপিয়ান জেলার হিরপুরা গ্রামের একজন বাসিন্দা আবিদ।

আবিদের ভাষ্যমতে, ১৪ আগষ্ট রাতে তাকে ও তার ভাইকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায় ভারতীয় উর্দি পরিহিত কয়েকজন সেনা। পার্শ্ববর্তী চৌগাম আর্মি ক্যাম্পে তাকে নিয়ে যায় তারা। রাত থেকেই তার উপর নেমে আসে অমানবিক অত্যাচারের ঝড়। সেলে ঢুকিয়ে সেনারা তাকে উলঙ্গ করে ফেলে। সেই মুহূর্তেই সে শুনতে পায় তার ভাইয়ের গগনবিদারি চিৎকার। পাশেই তাকে দেয়া হচ্ছিল ইলেকট্রিক শক। শকের যন্ত্রণায় ক্ষণে ক্ষণেই চিৎকার করে উঠছিল তার ভাই।

চৌগাম ক্যাম্পে সেই রাতে সেনারা আবিদকে উলঙ্গ করে তাকে চেয়ারে বসিয়ে দেয়। বেঁধে ফেলে তার হাত-পা। এরপর রড দিয়ে পেটানো হয় অনেকক্ষণ। আবিদ বলেন, পরদিন ক্যম্পের মেজর তাকে হিজবুল মুজাহিদিন নামক সংঠনের রিয়াজ নাইকু বলে স্বীকার করতে জোর দেয়। আবিদ অস্বীকৃতি জানালে একজন সেনা এসে তাকে কিছুক্ষণ ইলেকট্রিক শক দেয়। তিনি যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছিলেন, তবু তারা থামছিলো না। এরই মধ্যে একজন সেনা তার যৌনাঙ্গের কাছে ইলেকট্রিক তার ধরেন হুমকি দিতে থাকে, ‘আজ তোকে নপুংশক বানিয়ে দেবো।’ শেষমেশ তাকে নপুংশক বানিয়ে দেয়া হয়।

আরও পড়ুন : সাদের সমর্থনে সরে দাঁড়ালেন আওয়ামী লীগের রাজু

আবিদ বলেন, ‘পরদিন সন্ধ্যায় আমাকে ছাড়া হয়। বাড়ি ফেরার পর আমি লাগাতার ১০ দিন বমি করেছি। ২০ দিন লেগেছে আমার ঠিকভাবে নিজের পায়ে উঠে দাড়াতে।’

আবিদ যন্ত্রণা নিয়ে বলেন, ‘আমি আর ঠিকমত খেতে পারি না এখন। আমার স্ত্রী যে ঘরে ঘুমায়, সে ঘরে আমি আর যাই না। এমন নির্যাতনের মধ্য দিয়ে বাঁচার চাইতে গুলি খেয়ে মরে যাওয়া ভালো।’

এদিকে ভারতীয় সরকার আন্তর্জাতিক মিডিয়াগুলোতে বরাবরই কাশ্মীর বিষয়ে বলে আসছে, কাশ্মীরিদের ওপর কোন রকম অত্যাচার চলছে না। কাশ্মীরের স্বায়ত্বশাসন রদ প্রসঙ্গে বিজেপি নেতারা বলছে, কাশ্মীরের উন্নয়নে কাজ করছে ভারত সরকার।

ইত্তেফাক/কেআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত