ঢাকা সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬
৩৩ °সে


উপসাগর থেকে দূরে থাকতে মার্কিন শক্তিকে হুঁশিয়ারি রুহানির

উপসাগর থেকে দূরে থাকতে মার্কিন শক্তিকে হুঁশিয়ারি রুহানির
রুহানি এবং ট্রাম্প। ফাইল ছবি

পারস্য উপসাগর থেকে মার্কিন শক্তিকে দূরে থাকার জন্য হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। যুক্তরাষ্ট্র পারস্য উপকূলে সেনা মোতায়েন করার হুমকি দেয়ার পরই এমন সতর্কবার্তা এসেছে রুহানির কাছ থেকে।

পারস্য উপসাগরে বহিশক্তি সবসময়ই দুর্ভোগ ডেকে এনেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্রের প্রতিযোগীতা বন্ধ করা উচিত। তাদের সেনারা ইরানের সীমান্তে ঘাঁটি গড়ে আমাদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে।'

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুটি তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলাকে কেন্দ্র করে ইরানকে দায়ী করে আসছে সৌদি ও ইরান সরকার। এ ঘটনার পর থেকেই সৌদি আরবে সৈন্য পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। অপরদিকে সৌদি তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার কথা বরাবরই অস্বীকার করে আসছে ইরান সরকার। ইয়েমেন ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠণ হুতি বাহিনী ঘটনার দায় স্বীকার করে নেয়। কিন্তু এই হুতি বাহিনীকে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ আছে ইরানের বিরুদ্ধে।

এর আগে ইরানের পারমাণবিক শক্তি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষাকে কেন্দ্র করে বছরের শুরু থেকেই মার্কিন-ইরান সম্পর্ক বৈরী রূপ নেয়। পারমাণবিক শক্তিসক্রান্ত একটি চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিলে দু'দেশের সম্পর্কে অবনতি শুরু হয়। যুক্তরাষ্ট্র ও মার্কিনপন্থী শক্তিসমূহ পারস্যের দেশটির উপর একটার পর একটা নিষেধাজ্ঞা জারি করতে থাকে।

সমস্যার সমাধানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে আলোচনায় বসবেন বলে জানিয়েছেন হাসান রুহানি। এছাড়া আসন্ন জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে উপসাগরীয় শান্তি চুক্তির জন্য নতুন কিছু প্রস্তাবনা উত্থাপন করতে যাচ্ছেন বলে জানান দেশটির প্রেসিডেন্ট। এদিকে হুতি বাহিনীও সৌদি আরবের উপর আর কোনও হামলা চালাবে না বলে অঙ্গীকার করেছে।

কিন্তু শান্তিচুক্তির ব্যাপারে ঠিক কি কি প্রস্তাবনা আনতে যাচ্ছেন সে ব্যাপারে স্পষ্ট কিছু জানান নি রুহানি। যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি সরকারের উদ্দেশ্যে রুহানি বলেন, 'বাইরের শক্তি অতীতে পারস্যে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। তারা যদি সচেতন হয়ে থাকে, তবে উপসাগরে কখনোই আর অস্ত্র-প্রতিযোগীতা শুরু করা উচিত নয়। তারা আমাদের অঞ্চল থেকে যত দূরে থাকবে, ততই আমাদের নিরাপত্তার জন্য মঙ্গল।'

সৌদি আরবের প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়ে রুহানি বলেন, 'প্রতিবেশীদের বন্ধু বানাতে ইরান তাদের অতীতের সব ভুল ভুলে যেতে প্রস্তুত।'

এদিকে শুক্রবার সৌদি আরবের পক্ষ থেকে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে হাজারখানেক সেনা ও উন্নতমানের ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়। প্রতিরক্ষা সেক্রেটারি মার্ক এসপার বলেন, আমরা শুধু সৈন্যই নয়, সঙ্গে উন্নতমানের সেনা-সরঞ্জামাদিও পাঠাবো।'

আরও পড়ুন: কানাডার সিবিসি চ্যানেলে কবি আসাদ চৌধুরী অভিনিত মর্মস্পর্শী ‘মাদার টাং’

ইরানের কমান্ডার মাজ গেন হোসেন সালামি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যারাই আমাদের দেশকে যুদ্ধক্ষেত্র বানাতে চান, চেষ্টা করে দেখুন। কিন্তু মনে রাখবেন, আমরাও হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকবো না।'

বিবিসি ইত্তেফাক/মিশু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন