রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নেটওয়ার্ক অবকাঠামো খাতে কর রেয়াত সুবিধা প্রয়োজন

আপডেট : ১৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২২:০৫

জামাল উদ্দীন

ফাদিয়া খান পড়াশোনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ মেসন বিশ্ববিদ্যালয়ে। বায়োটেকনোলজিতে পড়াশোনা শেষ করে ২০১০-এ যোগ দেন সামিট গ্রুপে। তিনি এই গ্রুপের পরিচালক এবং সামিট কমিউনিকেশন্স লিমিটেডেরও পরিচালনা পর্ষদে রয়েছেন। সামিট গ্রুপ বাংলাদেশের বিদ্যুত্, জ্বালানি, টেলিযোগাযোগ এবং বন্দর অবকাঠামো তৈরি ও ব্যবস্থাপনায় ব্যাপক সাফল্য দেখিয়েছে। দেশের সব মানুষের কাছে প্রযুক্তি পৌঁছে দিতে সরকারের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ রূপকল্পে অনুপ্রাণিত হয়ে ২০০৯ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে সামিট কমিউনিকেশন্স লিমিটেড।

সম্প্রতি সামিট কমিউনিকেশন্স সর্বোচ্চ ভ্যাটদাতার স্বীকৃতিও পেয়েছে। জাতীয় পর্যায়ের এই অর্জন নিয়ে সম্প্রতি এক আলাপচারিতায় ফাদিয়া খান বলেন, সর্বোচ্চ ভ্যাটদাতার স্বীকৃতি অবশ্যই আমাদের জন্য সম্মানের। এজন্য আমরা এনবিআরকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সামিট কমিউনিকেশন্স লিমিটেড দেশের সবচেয়ে বড় আইআইজি হিসেবে মোট ১ হাজার ৯০০ জিবিপিএস ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ চাহিদার ৩৫ শতাংশ যোগান দিচ্ছে। আইটিসি হিসেবে দেশের মোট ৭৫০ জিবিপিএসের ৪৫০ জিবিপিস সেবা দিচ্ছে সামিট কমিউনিকেশন্স যা দেশের মোট চাহিদার ৬০ শতাংশ। এছাড়া ইন্টার-কানেকশন একচেঞ্জ হিসেবে দেশ জুড়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছি। সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে ইন্টারনেট সংযোগ সেবার মাধ্যমে আমাদের প্রতিষ্ঠান ‘ইনফো-সরকার’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করে মানুষের ভোগান্তি কমাচ্ছে এবং সরকারের ডিজিটাল কর্মসূচিতে অবদান রাখছে। সরকারের নীতি সহায়তায় দেশের প্রান্তিক পর্যায়ে এখন পর্যন্ত ৪৭ হাজার কিলোমিটারের বেশি অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক অবকাঠামো নির্মাণ করেছি আমরা। 

ফাদিয়া খান বলেন, টেলিযোগাযোগ সেবার সরবরাহ ব্যবস্থাপনা পরিপূর্ণ করতে আমাদের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান সামিট টাওয়ারস লিমিটেড যাত্রা শুরু করেছে। ইতিমধ্যে মোবাইল অপারেটর, বাংলালিংকের ২৫৯টি টাওয়ার নির্মাণ ও  ব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে কাজ শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এর মধ্য দিয়ে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অবকাঠামো নির্মাণ ও ব্যবস্থাপনার  সক্ষমতা অর্জন করছি।

প্রান্তিক পর্যায়ে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য সম্পর্কে ফাদিয়া খান বলেন, বর্তমানে দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিচ্ছে ইকমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো। প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্স থেকে শুরু করে ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ কার্যক্রমে অনলাইন ক্লাস, টেলিমেডিসিন, অনলাইন ব্যাংকিং সবকিছুই হচ্ছে ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে। ইন্টারনেট হলো ডিএনএর মতো। আমরা খালি চোখে ‘ডিএনএকে দেখতে পাই না, কিন্তু এটাই আমাদের জীবনকে পরিচালনা করে। তেমনিভাবে অপটিক্যাল ফাইবার ইন্টারনেট সঞ্চালনকেও খালি চোখে দেখা যায় না, কিন্তু প্রতিনিয়ত জীবনকে পরিচালনায় ইন্টারনেটের অবদান বাড়ছে। একটা সময় ইন্টারনেট ছিল শহর কেন্দ্রিক, অভিজাত সেবা। সরকারের সুদূরপ্রসারী নীতিমালার কারণে সামিট কমিনিউকেশন্স লিমিটেড দেশের প্রান্তিক পর্যায়ে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ইন্টারনেট পৌঁছে দিচ্ছে। তিনি বলেন, মোবাইল ইন্টারনেটের সঙ্গে ব্রডব্যান্ডের গতি এবং গুণমানের পার্থক্যটা এখনো অনেক। আমরা চাই, সাধারণ মানুষের কাছে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সহজলভ্য করতে।

ব্যবসার চ্যালেঞ্জ ও করণীয় সম্পর্কে ফাদিয়া খান বলেন, নেটওয়ার্ক অবকাঠামোর পরিধি বাড়িয়ে দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে, নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে আরো কিছু পলিসি সাপোর্টের প্রয়োজন। ইন্টারনেট অবকাঠামো নির্মাণ একটি ক্যাপিটাল ইনটেনসিভ ইন্ড্রাস্ট্রি, অথচ আমরা এই ইন্টারনেট অবকাঠামোসেবা প্রদানে কর রেয়াত সুবিধা নিতে পারছি না। এতে আমাদের  খরচ বাড়ছে। পাওয়ার প্ল্যান্টগুলো কর রেয়াত সুবিধা পেয়ে থাকে, অনুরূপ সুবিধা নেটওয়ার্ক অবকাঠামো খাতেও দেওয়া দরকার।

ইনফো-সরকার প্রকল্প সম্পর্কে জানতে চাইলে ফাদিয়া খান বলেন, আমরা প্রথম থেকেই ইনফো-সরকার প্রকল্পের সঙ্গে আছি। আইসিটি ডিভিশনের এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য ছিল দেশের সব ইউনিয়ন পর্যায়ে বিভিন্ন দপ্তর, বিদ্যালয়, কলেজ, গ্রোথসেন্টার ও অন্যান্য সরকারি কার্যালয়সমূহে নেটওয়ার্ক সংযোগ স্থাপনের জন্য, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারগুলোতে (ইউডিসি) হাইস্পিড ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়া। প্রকল্পটির প্রায় ৯৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এই অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে ইন্টারনেট পৌঁছে যাচ্ছে সরকারি-বেসরকারি অফিসে, মানুষের ঘরে ঘরে। 

ইন্টারনেট প্রসারে করণীয় সম্পর্কে সামিট গ্রুপের এই পরিচালক বলেন, এ পর্যায়ে ইন্টারনেটকে সার্বজনীন করতে সংযোগের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সবার মধ্যে জ্ঞান বিনিময় বাড়াতে হবে। সাধারণ মানুষেকে নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারে সচেতেনতা বৃদ্ধি এবং বিদ্যালয়ে ই-লার্নিং-এ জোর দেওয়া জরুরি, যেন করোনা পরবর্তী বিশ্বে বাংলাদেশ একটি জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতিতে রূপান্তরিত হয়। 

 

 

 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

মোটরসাইকেলের জ্বালানি সাশ্রয়ের ১০টি কৌশল 

মানব সভ্যতার ইতিহাসে ঘৃণ্য ও নৃশংসতম হত্যাকাণ্ডের মাস আগস্ট

কল ফর অ্যাপ্লিকেশনে ইউএসএআইডির নতুন চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতা

রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনার তদন্ত চেয়ে রিট

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

নতুন পণ্য ও ইনোভেশনের ঘোষণা দিল আকিজ বোর্ড

জাতীয় পরিবেশ পুরস্কার পেলেন অধ্যাপক ড. সালিমুল হক

'বিজনেস লিডারশিপ' সম্মাননা পেলেন প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

প্যারিসে নানা আয়োজনে বৈশাখী পূর্ণিমা উদযাপন