শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পাকিস্তানকে কাঁদিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

আপডেট : ১২ নভেম্বর ২০২১, ০০:১৮

এবারও হলো না। আইসিসি ইভেন্টের নকআউট পর্বে অজি ধাধা আর কাটাতে পারলো না পাকিস্তান। পুরো টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলে এসেও সেই অস্ট্রেলিয়ার কাছেই সেমিফাইনালে হেরে বিদায় নিতে হলো তাদের। চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ রাউন্ডের একমাত্র অপরাজিত দল পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেছে অজিরা।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পাক বাহিনীকে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হারিয়েছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। আগামী ১৪ তারিখ একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠেয় ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে তারা।

জয়ের পর ম্যাথু ওয়েড ও স্টইনিসের উল্লাস

এদিন, টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় অস্ট্রেলিয়া। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়েছে ১৭৬ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করায় পাকিস্তান। জবাবে ম্যাথু ওয়েডের অপরাজিত ১৭ বলে ৪১ ও স্টইনিসের অপরাজিত ৩১ বলে ৪০ রানের ওপর ভর করে এবং এক ওভার ও ৫ উইকেট হাতে রেখে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় অজিরা।

অবশ্য, শুরুতে জয়ের ভিত গড়ে দিয়ে যান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও তিনে নামা মিচেল মার্শ। আউট হওয়ার আগে ৩০ বলে ৪৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার। আর মার্শ করেছেন ২২ বলে ২৮ রান। তবে তাদের দুজনের উইকেট নেওয়ার পর একটা পর্যায়ে মনে হচ্ছিল ফলটা পাকিস্তানের পক্ষেই বেশি। কিন্তু দলটা যে অস্ট্রেলিয়া, একাদশেও রয়েছে সব বড় ম্যাচের প্লেয়াররা। সেটিরই যেন যথার্থ প্রমাণ দিলেন ম্যাথু ওয়েড ও স্টইনিস।

পাক বোলারদের মধ্যে একমাত্র সফল ছিলেন শাদাব খান

পাক বোলারদের মধ্যে একমাত্র সফল ছিলেন শাদাব খান। ৪ ওভারে ২৬ রান খরচায় ৪টি উইকেট শিকার করেন তিনি। অন্য উইকেটটি নেন শাহিন আফ্রিদি। এর আগে শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে দলটির পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৭ রান করেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। এছাড়া ফখর জামান ৫৫ ও বাবর আজম করেন ৩৯ রান।

ইত্তেফাক/টিএ