মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
দৈনিক ইত্তেফাক

ধারের টাকা ফেরত না দিতে সাবেক বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাকে খুন: র‌্যাব 

আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০২১, ১৪:২২

সাবেক বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আনোয়ার শহীদের কাছ থেকে ধার নেওয়া ১২ লাখ টাকা ফেরত না দেওয়ার জন্য তাকে খুন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। সোমবার (১৫ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এর আগে, রবিবার ( ১৪ নভেম্বর) রাতে র‌্যাব সদর দফতর গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-২ এর অভিযানে গাবতলী বাসষ্ট্যান্ড এলাকা থেকে মো. জাকির হোসেন ও মো. সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি র‍্যাবের কাছে স্বীকার করে এবং  হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী গ্রেফতারকৃত আসামি জাকির প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‍্যাবকে জানান, নিহত বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আনোয়ার শহীদ দিনাজপুর শহরে কর্মরত থাকা অবস্থায় তার সঙ্গে পরিচয় হয় যা পরবর্তীতে ঘনিষ্ঠতায় রূপ নেয়। দিনাজপুরে ভিকটিম কর্তৃক জমি ক্রয়ের সময় জাকির দালাল হিসেবে মধ্যস্থতা করে।

ছবি: ইত্তেফাক

এছাড়া, আনোয়ার শহীদের কাছ হতে বিভিন্ন সময়ে জাকির ১২ লাখ টাকা ধার হিসেবে নেন। আনোয়ার শহীদের অবসর গ্রহণের পর ঢাকায় বসবাস শুরু করলেও ঘনিষ্ঠতার সুবাদে জাকিরের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে যোগাযোগ হতো। এক বছর আগে জাকির তার চালের গোডাউন বন্ধক রেখে ২০ লাখ টাকা ঋণ পাইয়ে দিতে তার সহযোগিতা চান। কিন্তু আনোয়ার শহীদ তাকে সহযোগিতা করতে অপারগতা জানান। বরং তার পাওনা ১২ লাখ টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য জাকিরকে চাপ দেন। এই টাকা ফেরত না দিতে তাকে হত‌্যার পরিকল্পনা করা হয়।

গত ১১ নভেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আদাবর থানা শ্যামলীর হলিল্যান্ড গলিতে অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তি ওই বৃদ্ধকে ছুরিকাঘাত করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ১১টায় তার মৃত্যু হয়। 

ইত্তেফাক/কেএইচ/কেকে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত নিতো তারা

চোরাই তামার তারে কোটি টাকার ম্যাগনেটিক কয়েন!

যেভাবে মুদি দোকানদার থেকে সিরিয়াল কিলার ছদ্মবেশী বাউল শিল্পী 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ভ্রমণ ভিসায় দেশে এসে অভিনব প্রতারণা, ৭ বিদেশিসহ গ্রেফতার ৯

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর দুই কিশোরীকে ধর্ষণের পর ট্রাকে আত্মগোপনে ছিল রিয়াদ

করোনার চিকিৎসার নামে প্রতারণা হলেই ব্যবস্থা