মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
দৈনিক ইত্তেফাক

বাসে ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকি: ড্রাইভার-হেলপার গ্রেফতার

আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২১, ২১:৪২

রাজধানীর বদরুন্নেসা কলেজের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া ড্রাইভার মো. রুবেল ও হেলপার মো. মেহেদী হাসানকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। রবিবার  (২১ নভেম্বর)  দিবাগত রাত পৌনে ৮টার দিকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)এর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

একইদিন রাত সাড়ে ৯টায় কাওরানবাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মকর্তা জানান, তথ্যের ভিত্তিতে সকাল থেকেই আমরা নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে তাদের খুঁজতে থাকি। পরে সন্ধ্যায় র‍্যাব-১০ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে ঠিকানা পরিবহনের ওই  ড্রাইভার মো. রুবেল ও হেলপার মো. মেহেদী হাসানকে আটক করা হয়। 

এর আগে, ধর্ষণের হুমকির ঘটনা তুলে ধরে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী। তিনি লেখেন, আমার বাসা শনির আখড়া। এখান থেকে কলেজের (বকশী বাজার এলাকা) ভাড়া ১০ টাকা, প্রতিদিন ১০ টাকা দিয়েই যাচ্ছি। আজ কলেজে যাওয়ার সময় ঠিকানা বাসে করে গিয়েছিলাম। হেলপারকে ২০ টাকার নোট দিলে সে ভাড়া রাখে ১৫ টাকা। আমি তাকে ভালো করেই বলছিলাম আমার ১০ টাকা ফেরত দিতে, বাট সে দেয় তো নাই উল্টো বলে ‘দিমু না কী করবি কর’। এরপর চিল্লানোর পর সে বলে ‘গলা বড় করবি না, পাঁচ টাকা নে, না হয় নাইমা যা।’

ওই শিক্ষার্থী আরও লিখেছেন, বাসের একটা মানুষও তাকে একটা কথা বলে নাই। কেউ কিচ্ছু বলে নাই। ইভেন একটা পুলিশও ছিল, সেও কিছু বলে নাই। এরপর নামার সময় পাঁচ টাকা হাতে ধরায় দিয়ে বলে, ‘নে তোর টাকা, প্রতিদিনই তো আসবি, একদিন ধইরা...কোথাকার’। এই কথা যখন বলছে, তখন বাস অলরেডি রানিংয়ে, আমি তাকে কিছু বলার সুযোগও পাইনি আর বাসের নম্বর নোট করারও সুযোগ পাইনি। জোরে বাস টেনে চলে গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা বলছেন, হাফ পাসের নিতে বলায় এক সহপাঠীকে বাসের হেল্পার ধর্ষণের হুমকি দিয়েছে। এর প্রতিবাদে  রাজধানীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা বকশিবাজার মোড়ে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে সড়কে বিক্ষোভ করেন। পরে  হাফ ভাড়া কার্যকর ও ধর্ষণের হুমকিদাতাকে গ্রেফতারের দাবিতে সরকারকে ২৪ ঘণ্টার দেন বিক্ষোভকারীরা।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে বিআরটিসি বাসের হেলপার মাকসুদুর রহমান টিটু দৈনিক ইত্তেফাক অনলাইনকে বলেন, ‘আজকে যে ঘটনা শুনেছি, বাসের হেল্পার ছাত্রীদের সঙ্গে যে ব্যবহার করেছে, তা কখনোই সমর্থন করা যায় না। আমাদেরও ঘরে মা-বোন আছে। আমরা এমন আচরণ কেন করবো? আমরা চাই, ওই হেলপারের উপযুক্ত বিচার হোক।’

মিরপুরগামী শিকর পরিবহন বাসের হেলপার মো. উজ্জ্বল ইসলাম বলেন, ‘ভাড়া নিয়ে গাড়িতে অনেকের সঙ্গে কথাকাটি হয়। তবে, এমন ব্যবহার কেন করবে? তারা আমাদের বোন। কলেজের ছাত্রীদের সঙ্গে বাসের হেলপার যে ব্যবহার করেছে, সেটা খারাপ করেছে। হাফ ভাড়া দিতে চাইলে ধর্ষণের হুমকি কেন দেবে? আমরা এর বিচার চাই।’

আন্দোলনকারী ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর ৭ম সেমিস্টারের একজন ছাত্র মেহেদী হাসান বলেন, ‘আমরা গাড়িতে উঠলে হাফ ভাড়া তো নিতেই চায় না হেলপার। উল্টো আমাদের সঙ্গে ঝগড়া করে। ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকির তীব্র নিন্দা জানাই। অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানাই।’

এদিকে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে  অ্যাসোসিয়েশন অব বাস কোম্পানিজ-এর সভাপতি খন্দকার রফিকুল হোসেন কাজল ইত্তেফাক অনলাইনকে বলেন,  ‘আইনের শাসনে বিশ্বাস করি। যদি কেউ অন্যায় করে, তাহলে সরকার রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রয়েছে।  তারা এর শাস্তি নিশ্চিত করবে।  হাফ ভাড়ার বিষয়টি আমাদের কাছে কিছু নেই। সরকার যে সিদ্ধান্ত নেয়, সেই সিদ্ধান্তেই আমাদের গাড়ি চলবে। শিক্ষার্থীরা  বাসের হেলপারের সঙ্গে ভাড়া নিয়ে প্রায় সময়ই ঝামেলা করে। এসব তো নতুন ঘটনা নয়।’

এ প্রসঙ্গে সহকারী পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক রমনা বিভাগ) মো. রেফাতুল ইসলাম ইত্তেফাক অনলাইনকে বলেন, ‘নির্দেশনা মোতাবেক আমরা প্রতিদিন মোবাইল কোর্ট পরিচলানা করছি। সড়কের কোনো অনিয়ম আমাদের নজরে পড়লে  সঙ্গে সঙ্গে পদক্ষেপ নিচ্ছি। জরিমানাও করছি।’ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যেটা করেছে, সেটা অবশ্যই খারাপ করেছে। এইটা কখনো গ্রহণযোগ্য নয়।’ তিনি বলেন, ‘আমরা একটা বিষয় লক্ষ করলাম।  মোবাইল কোর্ট বসিয়ে জরিমানা করা হচ্ছে। সেটা পরিবহন সংশ্লিষ্টরা অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না। গত বৃহস্পতিবার হঠাৎ করে রাজধানীর সড়কে অর্ধেক বাস কমে গেছে। তবে, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে আমরা প্রতিনিয়ত জরিমার আওতায় নিয়ে আসছি।’

গত দুই দিন ধরেই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বাসে অর্ধেক ভাড়া দেওয়ার দাবিতে খণ্ড খণ্ড আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। শনিবার (২০ নভেম্বর) রাজধানীর শনির আখড়ায় ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে বদরুন্নেসা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রী অর্ধেক ভাড়া দিতে চাইলে তাকে ধর্ষণের হুমকি দেয় বাসচালকের সহকারী। এর প্রতিবাদে রোববার রাজধানীর বকশীবাজারে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন তার সহপাঠীরা। অবরোধের কারণে চানখাঁরপুল থেকে বকশীবাজার এবং বকশীবাজার, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও বুয়েট অভিমুখী সড়কে যান চলাচল কয়েকঘণ্টা বন্ধ হয়ে যায়। পরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর আশ্বাসে, ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়ে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা। এদিকে গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হয়রানির প্রতিবাদ ও শিক্ষার্থীদের হাফপাস চালুর দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত নিতো তারা

রাজধানীতে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে গ্রেপ্তার ৭০

শাহনাজ সুলতানার ছবিতে নারী ও প্রকৃতি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

মেরিন জার্নালিস্ট নেটওয়ার্কের সভাপতি গোলাম মওলা, সম্পাদক সাজিদ রাজু

চোর সন্দেহ আটক, পরে ফাঁস দিয়ে হত্যা

শ্যামপুরে গার্মেন্টসের আগুন নিয়ন্ত্রণে

চোরাই তামার তারে কোটি টাকার ম্যাগনেটিক কয়েন!