মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
দৈনিক ইত্তেফাক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

পাঁচ বছরে তিনবার বিজ্ঞপ্তি, যোগ্য শিক্ষক পাচ্ছে না উর্দু বিভাগ

  • শিক্ষকরাই উর্দু পারেন না
  • খন্ডকালীন শিক্ষক দিয়েই চলছে কার্যক্রম
প্রকাশ : আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২১, ০১:২১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্দু বিভাগে শিক্ষক নিয়োগের জন্য পাঁচ বছরে তিনবার আবেদন আহ্বান করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু দুইবারের আবেদনে কোনো শিক্ষক নিয়োগ দিতে পারেনি বিভাগটি। সর্বশেষ আবেদনটিও এক বছর ধরে ঝুলে আছে। তবে স্বজনপ্রীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তুলেছে কয়েকজন প্রার্থী। 

এবারের সিলেকশান বোর্ডে এমফিল-পিএইচডিধারী প্রার্থীদের ভাইভায় অংশগ্রহণের সুযোগ না দিয়ে স্নাতকোত্তর উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সুযোগ দিয়েছে বলে অভিযোগ জানিয়েছে কয়েকজন প্রার্থী। তবে বিশ্ববিদ্যালয় বলছে, প্রার্থীরা এমফিল-পিএইচডি করলেও বিজ্ঞপ্তির প্রাথমিক শর্ত পূরণ না করায় সিলেকশান বোর্ডের কার্ড প্রদান করা হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্দু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালে প্রথমবার একটি পদের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিভাগটি। কিন্তু সেবার নির্বাচনি পরীক্ষার পর সিলেকশান বোর্ড কাউকে না নিয়ে পরবর্তীতে ২০১৮ সালে ফের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এবার একটি পদের পরিবর্তে দুইটি পদের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এবার নির্বাচনি পরীক্ষার এডমিট কার্ড পায়নি প্রার্থীরা। উপাচার্যের নিকট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সে নিয়োগও বন্ধ হয়ে যায়। সর্বশেষ ২০২০ সালে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিভাগটি। এবার নির্বাচনি পরীক্ষায় প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করলেও কোন এমফিল-পিএইচডি ধারী প্রার্থীদের ভাইভা কার্ড দেয়া হয়নি। 

২০১৬ ও ২০১৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) দায়িত্বে ছিলেন অধ্যাপক ড. নাসরিন আহমেদ। নিয়োগ না দেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, উর্দু বিভাগ এমন একটি বিভাগ যেখানে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার মতো যোগ্য প্রার্থী পাওয়া যায় না। বিভাগের শিক্ষার্থীরা এমন যে, তারা ন্যূনতম একটা একটা মার্কস পেয়ে আসে। যখন আমি ভাইভা নিচ্ছি তখন দেখা যায়, উর্দুর ন্যূনতম জ্ঞানটুকু তার নেই। তারা আমার চাইতেও কম উর্দু পারে। সে কারণে তাদের নেওয়া হয়নি। 

তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় যারা একদম নিচের দিকে থাকে, একটা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা তকমা লাগানোর জন্য সংস্কৃতি, উর্দু এগুলোতে ভর্তি হয়। তারা জীবনে সংস্কৃতের নামও শুনেনি। কিছু কিছু বিষয় আছে যেগুলোকে স্নাতক বা স্নাতকোত্তরে পড়ানো উচিত না। সেগুলোকে ভাষা ইনস্টিটিউটে স্থানান্তর করা উচিত। 

গত ১২ বছর নিয়োগ বোর্ডের সদস্য সদস্য ছিলেন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মো. মাহমুদুল ইসলাম। তিনি বলেন, যোগ্য প্রার্থী পায়নি বিষয়টি সঠিক নয়। সিলেকশান বোর্ড হয়েছিলো, কিন্তু নিয়োগ দেওয়া হয়নি। কেন নিয়োগ দেওয়া হয়নি সে বিষয়ে আমাদেরও কিছু জানানো হয়নি। পরবর্তীতে দীর্ঘ সময় পার হয়ে যাওয়ার পর নতুন শিক্ষার্থীদেরও অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়ার জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। 

আবেদনকারী প্রার্থী ড. এ সালাম বলেন, উর্দু বিভাগ এখন কিছু শিক্ষকের রুটি-রুজির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। এখানে কেউ ফার্স্ট হয় না। টার্গেট করে কাউকে ফার্স্ট বানানো হয় এবং নিয়োগে কখনো অর্থের লেনদেন, স্বজনপ্রীতি, দলীয় লেজুর বৃত্তি ও ক্ষমতার দাপট প্রাধান্য পায়। পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতে প্রভাষক নিয়োগে যেখানে পিএইচ.ডি ডিগ্রি বাধ্যতামূলক সেখানে বাংলাদেশে বিশ^বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে মেট্রিক-ইন্টার পাশের যোগ্যতাকে মাপকাঠি করা হয়েছে।

শিক্ষকরাই উর্দু পারেন না

শুধু শিক্ষার্থীরা নয়, উর্দু বিভাগের শিক্ষকরাও ভালোভাবে উর্দু বলতে পারেন না বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক শিক্ষার্থীদের। শিক্ষকরা উর্দু না জানলে শিক্ষার্থীরাও উর্দুতে খড়গহস্ত হবে না এমনটিই স্বাভাবিক। বিভাগের কয়েকজন সাবেক শিক্ষার্থী জানান, বিভাগের ৯ জন শিক্ষকের মধ্যে ৫ শিক্ষকই ভালোভাবে উর্দু বলতে ও লিখতে পারেন না। উর্দুর বিষয়ে শিক্ষকদেরও জ্ঞান কম। তারা শিক্ষার্থীদের কিভাবে উর্দু বিষয়ে পঠন-পাঠনে দক্ষ করে তুলবে। 

বিভাগটির চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম বলেন, এসব নিয়োগের বিষয়ে আমার জানা নেই। আমি নতুন এসেছি। এসব বিষয়ে বিভাগের সিনিয়র শিক্ষকরা ভালো জানবেন। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, ২০১৬ সালে এবং ২০১৮ সালে কেন শিক্ষক নেওয়া হয়নি সে বিষয়ে আমার ধারণা নেই। তখন আমি দায়িত্বে ছিলাম না। প্রার্থীরা যদি যোগ্য না হয় তাহলে প্রার্থীদের নেয়ার সুযোগ নেই। 

 

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

স্নাতক প্রোগ্রামের জন্য প্রায় ৪ কোটি টাকা অনুদান পেলো আইইউবি

আইইউবিতে গবেষণায় দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক কর্মশালা

শতবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: বর্ণিল সাজে ক্যাম্পাস

জ্ঞান-দক্ষতা-মূল্যবোধের সমন্বয়ে পাঠ্যক্রম প্রণয়ন করা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

৭ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ

অনলাইনে মাধ্যমিকে ভর্তির আবেদন শুরু আজ

ঢাবিতে ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ