মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

সরকারি মাধ্যমিকের ভর্তি লটারির ফল প্রকাশ 

আগামী বছরও ভর্তি লটারিতে

আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৪০

নামীদামী প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য অভিভাবকদের যুদ্ধ থামাতে এবং শিক্ষার্থীদের ওপর মানসিক চাপ কমিয়ে প্রতিষ্ঠানে মেধার সমন্বয় ঘটাতে ভবিষ্যতেও লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে বলে জানিয়েছেন ডা. দীপু মনি| 

গতকাল বুধবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষার্থী ভর্তির ডিজিটাল লটারি উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন| সারা দেশে ৪০৫টি সরকারি স্কুলের ৮০ হাজার ১৭টি শূন্য আসনের বিপরীতে মোট ৫ লাখ ৩৮ হাজার ১৫৩ জন শিক্ষার্থীর আবেদন লটারিতে জমা পড়ে| লটারির জন্য ঢাকা মহানগরীর ৪৪টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে তিনটি ফিডার শাখাসহ তিনটি গ্রুপে বিভক্ত করা হয়| আবেদনের সময় একজন শিক্ষার্থীর একটি গ্রুপে পছন্দের ক্রমানুসারে সর্বোচ্চ পাঁচটি স্কুলের নাম দেওয়ার সুযোগ ছিল| 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নামীদামী স্কুলে ভর্তি করবার অসুস্থ প্রতিযোগিতা বিভিন্ন সময় আমরা দেখেছি| আবার সেই ভর্তি করাতে গিয়ে অনেকে অনৈতিক পথ বেছে নিতে পিছপা হন না| এ কারণে লটারির মাধ্যমে ভর্তি এবং ক্লাসের রোল নম্বর তুলে দিয়ে শিক্ষার্থীর ইউনিক আইডি করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আমরা চিন্তা করছিলাম|’ কোনো স্কুলে শিক্ষার্থী ভর্তিতে অতিরিক্ত ফি নিলে কঠোর ব্যবস্হা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী| পরে শিক্ষামন্ত্রী ল্যাপটপে ভর্তির নির্ধারিত সফটওয়্যারে প্রবেশ করে বাটনে চাপ দিয়ে ডিজিটাল লটারির উদ্বোধন করেন| 

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. মো. গোলাম ফারুক উপস্থিত ছিলেন| সব ধরনের ফি নেওয়ার অনুমতি সারা দেশের সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টিউশন ফির পাশাপাশি সব ধরনের ফি নেওয়ার অনুমতি দিয়েছে সরকার| গতকাল মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে| 

আদেশে বলা হয়, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে সারা দেশের সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে টিফিন, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার ও ম্যাগাজিন ফি এবং বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে টিফিন, পুনঃ ভর্তি, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার, ম্যাগাজিন, উন্নয়ন ফি গ্রহণ না করার নির্দেশনা ছিল| নির্দেশনায় আরো বলা হয়, ২০২২ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শিক্ষা মন্ত্রণালয়-নির্ধারিত টিউশন ফি ও বার্ষিক সেশন চার্জ গ্রহণ করতে পারবে|

 

ইত্তেফাক/এমএএম