শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

‘যুদ্ধের দামামা’, ইউক্রেনে ভয়াবহ সাইবার হামলা

আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:২৬

শুক্রবার ভয়াবহ সাইবার হামলার শিকার হয়েছে ইউক্রেন। হামলায় আরও সতর্ক করা হয়েছে, সামনে আরও 'ভয়াবহ হামলা' হতে পারে। এদিকে রাশিয়ার টেলিভিশনের ছবিতে দেখানো হয়েছে, মহড়ার জন্য ইউক্রেন সীমান্তে আরও সেনা মোতায়েন করেছে দেশটি।  

গত বৃহস্পতিবার রাশিয়া এবং পশ্চিমাদের আলোচনায় ইউক্রেন ইস্যুতে কোনো ফলপ্রসু ফলাফল না আসায় এই খবর জানা গেলো।  

মার্কিন এক সিনিয়র কূটনীতিবিদ বলেছেন, 'যুদ্ধের দামামা বাজছে'। তবে রাশিয়া বলছে, ইউক্রেনে তাদের হামলার কোনো পরিকল্পনা নেই। তবে প্রয়োজনে সামরিক পদক্ষেপ নিতে তারা প্রস্তুত। 

রাশিয়া বলেছে, সুদূর পূর্বে তাদের যে সেনারা রয়েছে তারা দূরবর্তী সামরিক স্থানগুলোতে অনুশীলন করবে। সংবাদ সংস্থা আরএইএ-এ প্রকাশিত দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ছবিতে দেখা গেছে পূর্ব সামরিক জেলায় ট্রেনে অসংখ্য সাঁজোয়া যান এবং অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম তোলা হচ্ছে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের সরকারি সংস্থা, যার মধ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মন্ত্রীদের মন্ত্রিসভা এবং নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা কাউন্সিলসহ অন্যান্য সংস্থায় ভয়াবহ সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। 

আপনাদের সমস্ত ব্যক্তিগত তথ্য পাব্লিক নেটওয়ার্কে আপলোড করা হয়েছে। কম্পিউটারের সমস্ত তথ্য ধ্বংস হয়েছে, এটি পুনরুদ্ধার করা আর সম্ভব নয়। ইউক্রেনের একটি সরকারি হ্যাক হওয়া ওয়েবসাইটে ইউক্রেনীয়, রাশিয়ান এবং পোলিশ ভাষায় এই বার্তা লেখা হয়েছে। 

বার্তায় আরও লেখা হয়েছে, আপনাদের সকল তথ্য এখন উন্মুক্ত। ভয় পান এবং আরও ভয়াবহ আশা করুন। এটা আপনাদের অতীত, বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ। 

ইউক্রেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেন, এই হামলার পেছনে কে তা এখনে বলা সম্ভব নয়। তবে অতীতে রাশিয়া এমন হামলা চালিয়েছিল। 

ইত্তেফাক/এসআর