বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮
দৈনিক ইত্তেফাক

বরিসের পদত্যাগ কি আসন্ন

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ২০:০৩

করোনার বিধিনিষেধ ভেঙে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে মদ ও নাচের পার্টি করায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ওপর ক্রমাগত চাপ বাড়ছে। 

দেশটির লেবার পার্টির নেতা কাইর স্টারমার বলেছেন, 'নেতৃত্ব দিতে অক্ষম' বরিস জনসন। একই সঙ্গে শুক্রবার ডাউনিং স্ট্রিটে জনসনের ছবি সম্বলিত মাস্ক পড়ে বিক্ষোভ করেছে বিক্ষোভকারীরা। সে সময় তারা বরিসের পদত্যাগের আহ্বান জানান।   

বরিসের কনজারভেটিভ দলের অন্তত পাঁচজন এমপি বলেছেন, তারা বরিসের ওপর আস্তা নেই- এর ওপর ভোট করতে চিঠি লিখেছে। জনসনের দলের অনেক নেতা জনসনের পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন। 

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ টোরি নেতা এবং সাবেক মন্ত্রী টোবিয়াস এলউড বিবিসিকে বলেছেন, বরিস নেতৃত্ব দিক নাইলে সরে দাঁড়াক। ডিফেন্স সিলেক্ট কমিটির চেয়ার টোবিয়াস এলউড আরও বলেছেন, আমাদের নেতৃত্ব দরকার। 

এছাড়া দেশটির শত শত বিক্ষুব্ধ জনতা বরিসের পদত্যাগের জন্য দেশটির এমপিদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। 

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ও ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আগের সন্ধ্যায় বরিসের সরকারি বাসভবনের ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টির আয়োজন করায় গতকাল শুক্রবার দেশটির সরকার এ ক্ষমা চেয়েছে। 

জনসনের কার্যালয়ের মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, গভীরভাবে দুঃখজনক যে এটা জাতীয় শোকের সময় ঘটেছে এবং বরিসের কার্যালয় বাকিংহাম প্রাসাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে।   

এর আগে গত বুধবার ২০২০ সালের মে মাসে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টিতে যোগদানের ব্যাপার স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে বরিস বলেন, আমি জনগণের ক্ষোভ বুঝতে পেরেছি।  

বুধবার পার্লামেন্টে বরিস বলেন, আমি বুঝি আমার নেতৃত্বের সরকারকে নিয়ে তারা আমার প্রতি ক্ষুব্ধ, কেননা তারা ভাবছে যখন ডাউনিং স্ট্রিটে নিয়মগুলো যারা তৈরি করে তারাই তা সঠিকভাবে মানছে না। বিবিসি, আল জাজিরা   

ইত্তেফাক/এসআর

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বরিসের লকডাউন পার্টির তদন্তে পুলিশ

তিব্বতি প্রবাসীদের চীনা শাসনকে চ্যালেঞ্জ করার আহ্বান

ব্রিটেনে ইসলামবিদ্বেষ বিতর্কে নাজেহাল ক্ষমতাসীন দল  

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

রাশিয়াকে কড়া হুঁশিয়ারি বরিসের 

যুদ্ধের দামামা, সামরিক শক্তি বাড়াচ্ছে ন্যাটো 

ইংল্যান্ডে টিকাপ্রাপ্ত ভ্রমণকারীদের জন্য কোভিড টেস্ট বাধ্যতামূলক না

মুসলিম হওয়ায় মন্ত্রিত্ব গেছে: ব্রিটিশ এমপি