মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বরিসের পদত্যাগ কি আসন্ন

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ২০:০৩

করোনার বিধিনিষেধ ভেঙে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে মদ ও নাচের পার্টি করায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ওপর ক্রমাগত চাপ বাড়ছে। 

দেশটির লেবার পার্টির নেতা কাইর স্টারমার বলেছেন, 'নেতৃত্ব দিতে অক্ষম' বরিস জনসন। একই সঙ্গে শুক্রবার ডাউনিং স্ট্রিটে জনসনের ছবি সম্বলিত মাস্ক পড়ে বিক্ষোভ করেছে বিক্ষোভকারীরা। সে সময় তারা বরিসের পদত্যাগের আহ্বান জানান।   

বরিসের কনজারভেটিভ দলের অন্তত পাঁচজন এমপি বলেছেন, তারা বরিসের ওপর আস্তা নেই- এর ওপর ভোট করতে চিঠি লিখেছে। জনসনের দলের অনেক নেতা জনসনের পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন। 

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ টোরি নেতা এবং সাবেক মন্ত্রী টোবিয়াস এলউড বিবিসিকে বলেছেন, বরিস নেতৃত্ব দিক নাইলে সরে দাঁড়াক। ডিফেন্স সিলেক্ট কমিটির চেয়ার টোবিয়াস এলউড আরও বলেছেন, আমাদের নেতৃত্ব দরকার। 

এছাড়া দেশটির শত শত বিক্ষুব্ধ জনতা বরিসের পদত্যাগের জন্য দেশটির এমপিদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। 

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ও ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যের আগের সন্ধ্যায় বরিসের সরকারি বাসভবনের ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টির আয়োজন করায় গতকাল শুক্রবার দেশটির সরকার এ ক্ষমা চেয়েছে। 

জনসনের কার্যালয়ের মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, গভীরভাবে দুঃখজনক যে এটা জাতীয় শোকের সময় ঘটেছে এবং বরিসের কার্যালয় বাকিংহাম প্রাসাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে।   

এর আগে গত বুধবার ২০২০ সালের মে মাসে ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টিতে যোগদানের ব্যাপার স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে বরিস বলেন, আমি জনগণের ক্ষোভ বুঝতে পেরেছি।  

বুধবার পার্লামেন্টে বরিস বলেন, আমি বুঝি আমার নেতৃত্বের সরকারকে নিয়ে তারা আমার প্রতি ক্ষুব্ধ, কেননা তারা ভাবছে যখন ডাউনিং স্ট্রিটে নিয়মগুলো যারা তৈরি করে তারাই তা সঠিকভাবে মানছে না। বিবিসি, আল জাজিরা   

ইত্তেফাক/এসআর

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে ২২ শতাংশ এগিয়ে ট্রাস

ইউক্রেনে আরও রকেট লঞ্চার পাঠাচ্ছে যুক্তরাজ্য 

বিদ্যুতের রেকর্ড মূল্যবৃদ্ধির সঙ্গে শীতে লোডশেডিং ঝুঁকিতে যুক্তরাজ্য

যুক্তরাজ্যে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন: উপস্থাপক জ্ঞান হারানোয় বিতর্ক সমাপ্ত

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

যুক্তরাজ্যে রেকর্ড তাপমাত্রা

রেকর্ড তাপপ্রবাহ যুক্তরাজ্যে

চরম তাপপ্রবাহ, যুক্তরাজ্যে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা

ইউরোপে দাবানল, বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছে হাজার হাজার মানুষ