শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অনাস্থা ভোটে জয়ের আশা বরিস জনসনের

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২২, ০১:২৩

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আশা প্রকাশ করে বলেছেন, তিনি অনাস্থা ভোটে জয় পাবেন। তার পদত্যাগে নিজ দলের এমপিদের চাপ বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই মন্তব্য করলেন তিনি। এদিকে ব্রিটেনে এখন আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে টোরি দলের হুইপের এমপিদের ব্ল্যাকমেইল করার বিষয়টি। 

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের মিত্ররা এটা নিশ্চিত যে, আগামী সপ্তাহে তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট হবে। তবে এক মন্ত্রী জানিয়েছেন, বিদ্রোহী এমপিরা এখনো সন্দিহান যে, তারা অনাস্থা ভোটে বরিসকে হারাতে পারবেন কি না। ব্রিটেনের পত্রিকা দ্য গার্ডিয়ান অন্তত পাঁচ জন এমপির সঙ্গে কথা বলেছে যাদেরকে  সরকার তহবিল কাটছাঁটের হুমকি দিয়েছে। এসব এমপি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এমনকি এমপিদের নিয়ে পত্রিকায় ক্ষতিকর সংবাদ প্রকাশ করারও হুমকি দেওয়া হয়েছে। 

দ্য টাইমস জানিয়েছে, এমপিরা হুইপের সঙ্গে তাদের ফোনালাপের বিষয়টি প্রকাশ করার চিন্তা করছেন। ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, আমরা এখনো ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগের বিষয়ে কিছু জানি না। এরকম কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে তা সতর্কতার সঙ্গেই বিবেচনা করা হবে। প্রধানমন্ত্রী বরিসও জানিয়েছেন, হুমকি দেওয়ার কোনো তথ্য তিনি পাননি। তবে বরিসের সমালোচক উইলিয়াম র্যাগ দাবি করেছেন, কয়েক জন এমপিকে ব্ল্যাকমেইল করা হয়েছে। তিনি এই অভিযোগের প্রমাণ মন্ত্রী, হুইপ, উপদেষ্টা, স্পিকার এবং পুলিশের কাছে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। বিরোধী লেবার পার্টিও এই ব্ল্যাকমেইলের নিন্দা জানিয়েছে।

অনাস্থা ভোটের চিঠি প্রত্যাহারে অনেক এমপির ওপর চাপ থাকলেও তা প্রত্যাহার করতে তারা অস্বীকার করেছেন। এদিকে তদন্ত কমিটির আছে একটি ই-মেইল এসেছে যাতে ২০২০ সালের ২০ মে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মার্টিন রেনল্ডসকে মদের পার্টি না করার বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছিল। যদিও প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন দাবি করেছেন, তিনি আগে সতর্কতার কোনো নোটিশ পাননি। তবে তারই সাবেক উপদেষ্টা ডমিনিক কামিংস দাবি করেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক করা হয়েছিল।

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

দ. কোরিয়ায় নতুন করে প্রায় ৯ হাজার করোনায় আক্রান্ত

ইমরানের আজাদি মার্চ, ইসলামাবাদে সেনা মোতায়েন

তুরস্ককে সামলানো ন্যাটোর জন্য এখন কঠিন

খাদ্য সংকট এড়াতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া জরুরি: মস্কো

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সেনেগালে হাসপাতালে আগুন, ১১ নবজাতকের প্রাণহানি

বিশ্বব্যাপী মাঙ্কিপক্স আক্রান্তের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়েছে

মদের পার্টি নিয়ে রিপোর্ট, চাপে বরিস

চলতি বছরের শেষ নাগাদ ক্রিমিয়া পুনর্দখল করবে কিয়েভ