বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অবৈধ যানের দখলে কুমিল্লার সড়ক

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৪

যানজটে নাকাল পূর্বাঞ্চলের সবচেয়ে জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ জেলা শহর কুমিল্লা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত যেন যানজট লেগেই থাকে এই নগরীর সড়কে। যত্রতত্র ছোট-বড় গাড়ির পার্কিং ও প্রধান সড়কের দুই পাশে ভ্রাম্যমাণ দোকান, ফুটপাত দখল করে দোকানপাট এবং সড়কের পাশে অ্যাম্বুলেন্স ও মোড়ে মোড়ে সিএনজি-অটোরিকশার অস্হায়ী স্ট্যান্ডের কারণে নগরীতে যানজট স্হায়ী রূপ নিয়েছে। দিনের অধিকাংশ সময় যানজটের কারণে থমকে যায় স্বাভাবিক জীবন। নগরীর সবকটি পথে অন্তত অর্ধলক্ষাধিক ব্যাটারিচালিত রিকশা, অটোবাইক, সিএনজি, মাইক্রো ও বাসের দাপট বেশি।

কুমিল্লা নগরীর কেন্দ্রস্হল কান্দিরপাড়। এখান থেকে দক্ষিণে টমছমব্রিজ হয়ে পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড যেতে হয়। এক লেনের এ সড়ক বিভিন্ন পরিবহনের বাস ছাড়াও স্কুল-কলেজসহ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-স্টাফ ও ছাত্রদের বহনকারী বাস, মিনিবাস, সারি সারি অ্যাম্বুলেন্স, সিএনজি, অটোবাইক ও ব্যাটারিচালিত রিকশার দখলে। মাঝে-মধ্যে এসব ছোট-বড় গাড়িগুলো আড়াআড়ি করে রাখা হয়। এতে সড়ক দিয়ে অন্য গাড়ি যেতে পারে না। যানজটের সবচেয়ে ভয়াবহ চিত্র চোখে পড়ে নগরীর নজরুল এভিনিউ, কান্দিরপাড়, রামঘাট, মনোহরপুর, টমছমব্রিজ চারমুখী সড়কের মোড়, শাসনগাছা, রাজগঞ্জ ও চকবাজার এলাকার। এসব এলাকায় অস্হায়ীভাবে সিএনজি, ব্যাটারিচালিত রিকশা, অটোবাইক থামিয়ে যাত্রী ওঠানামা করার কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েক জন বলেন, ‘নগরীর সড়কের মোড়ে মোড়ে অবৈধ অটোরিকশা ও ইজিবাইক থেকে রসিদ দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয় বেশ কয়েকটি সিন্ডিকেট। রাজনৈতিক ছত্রছায়ার এসব সিন্ডিকেট যেন সড়কে অবৈধ এসব যানবাহন চালানোর নিয়ামক শক্তি। ফলে অদক্ষ চালকদের বেপরোয়া গাড়ি চালনার কারণে যানজটের পাশাপাশি প্রায় সময় ঘটছে দুর্ঘটনা, পঙ্গুত্ববরণ করছে অনেকে।’

সিএনজি অটোরিকশার চালক মনির হোসেনসহ অন্তত ১২ জন বলেন, ‘আমরা কী করব। সড়কের ওপরই স্ট্যান্ড। তাই গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠাচ্ছি-নামাচ্ছি।’

ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চালক মাইনুদ্দিন বলেন, ‘আমরা বেকার ও গরিব মানুষ, গাড়ি চালনার প্রশিক্ষণ নেই, শিখে নিয়েছি। গাড়ি বৈধ-অবৈধ বুঝি না। টাকা দিয়ে রশিদ নিই, তা দেখিয়ে আমরা রাস্তায় গাড়ি চালিয়ে পরিবার চালাই।’

নগরীর পৌর বিপণি মার্কেটের ব্যবসায়ী মনিরুল ইসলামসহ অনেকে বলেন, ‘অটোরিকশা ও অটোবাইকগুলো বেআইনিভাবে শহরের যত্রতত্র স্ট্যান্ড বানিয়ে যাত্রী ওঠানামা করলেও তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্হা নেওয়া হয় না।’ 

কলেজশিক্ষক আবদুর রহিম জানান, ব্যস্ততম এই শহরে এত রিকশা, অটোবাইক চলে যে সড়কের এপাশ থেকে ওপাশে যেতে পারি না।

কুমিল্লা নাগরিক ফোরামের সভাপতি কামরুল আহসান বাবুল বলেন, নিয়ম না মেনে দিনরাত মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান যাতায়াতের কারণে যানজট সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন সরকারি ও ব্যক্তিগত যানবাহন রাস্তার পাশে যেখানে সেখানে পার্কিং করার কারণেও যানজট বাড়ছে।’

কুমিল্লা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক মুরাদ হোসেন বলেন, ‘যানজট নিরসনে আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করে যাচ্ছি। ব্যস্ততম শহরে মাঝে মধ্যে একটু যানজট লেগে যায়। তবে যানজটের মূল কারণ অবৈধ সিএনজি ও অটোরিকশার আধিক্য। যার কারণেই এই যানজট।’

বিআরটিএ কুমিল্লার সহকারী পরিচালক পারকন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘জেলায় চলাচল করা বেশির ভাগ সিএনজিচালিত অটোটেম্পো এবং সব অটোরিকশা ও অটোবাইক অবৈধ। এগুলোর কোনো লাইসেন্স নেই। এই অটোরিকশা ও অটোবাইকগুলোর চালকরাও অদক্ষ। ট্রাফিক আইন বলতে তারা কিছুই জানে না। যে কারণে যানজটের পাশাপাশি দুর্ঘটনাও বাড়ছে।’

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘নগরীর সড়ক যানজটমুক্ত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। অবৈধ রিকশা-গাড়ি চলাচলের ব্যাপারে শিগ্গিরই একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

ইত্তেফাক/বিএএফ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সাভারে দুটি অনিবন্ধিত হাসপাতাল সিলগালা

সুন্দরবনের কটকায় হরিণের মাংসসহ শিকারি আটক

ক্লাস বন্ধ রেখে শ্রেণিকক্ষে মাদক কারবারির সংবাদ সম্মেলন!

ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি-নবজাতকের মৃত্যু, হাসপাতাল সিলগালা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

পর্যটকে মুখরিত গুলিয়াখালি সি-বিচ, দিন দিন বাড়ছে কর্মসংস্থান 

মিরসরাইয়ে রাজমিস্ত্রিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

যে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী-শিক্ষক সবাই কৃষক

শিশু ধর্ষণের দায়ে ইমামের যাবজ্জীবন