বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

বিশ্বকে থমকে দেওয়া সেই পাঁচ মিনিটের বর্ণনা দিলেন এরিকসেন

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৫:৩৮

চলুন কিছু সময়ের জন্য পেছনে ফেরা যাক। ১২ জুন ২০২১, ইউরো কাপে ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচ। দুই দলই দুর্দান্ত খেলছিল। বল নিয়ে দৌঁড় দিতে গিয়ে হঠাৎ করেই মাঠে পড়ে গেলেন ডেনিশ ফুটবলার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। কিছু বুঝে ওঠার আগে দুই দলের খেলোয়াড়রা খেলা থামিয়ে দিলেন। মাঠেই তার প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলো।

মাঠে পড়ে যাওয়ার পর ৫ মিনিট এরিকসেনের দেহে কোনো জ্ঞান ছিল না। তার ভাষায়, ‘ওই পাঁচ মিনিট কী হয়েছিল আমি জানি না। স্মৃতিতে তা নেই।’ সেই এরিকসেন এখন সুস্থ। ফুটবল মাঠে নামার অপেক্ষায়। তবে কবে নাগাদ খেলতে নামবেন, তা এখনো নির্ধারিত হয়নি। তার আগে বিবিসিকে দেওয়া এক দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন ফুটবল মাঠে ঘটে যাওয়া সেই ঘটনার বর্ণনা।

ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন

ডেনমার্ক অধিনায়ক সিমোন কায়ের ছিলেন বলে সেদিন রক্ষা। তার উপস্থিত বুদ্ধি ও দুই দলের মেডিকেল টিম মাঠেই ত্বরিতগতিতে প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে ‘সিপিআর’ দেন। এরপর হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার বুকে ‘পেসমেকার’ বসানো হয়েছে। কিন্তু পেসমেকারের কারণে ইতালিয়ান ফুটবলে আর খেলতে পারবেন না এরিকসেন। ইন্টার মিলান ছেড়ে তার নতুন ঠিকানা এখন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ব্রেন্টফোর্ড। সেটির হয়ে মাঠে নামার অপেক্ষায় ডেনিশ মিডফিল্ডার।

ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন জানান, ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে সেই ম্যাচে অসুস্থতা থেকে প্রায় সবকিছুই মনে আছে তার। কেবল ওই পাঁচ মিনিটের স্মৃতি তার মাথায় নেই। অর্থাৎ তার জীবন থেকে মুছে গেছে সেই সময়টা।

সেই ঘটনার পর প্রায় পাঁচ মাস অতিবাহিত হয়ে গেছে। সাক্ষাৎকারে এরিকসেন বলেন, ‘ওই পাঁচ মিনিট ছাড়া সবকিছু আমার মনে আছে। থ্রো-টা মনে আছে, বল আমার হাঁটুতে লাগে, এরপর কী ঘটেছে তা আর মনে নেই। জ্ঞান ফেরার পর দেখলাম, প্রচুর লোক ঘিরে আছে আমাকে। বুকে চাপ নিয়ে শ্বাসপ্রশ্বাস ফেরানোর চেষ্টা করছে। কী ঘটছে কিছুই বুঝতে পারছিলাম না। মনে হচ্ছিল, মেরুদণ্ড কিংবা পা ভেঙে গিয়েছে! তখন শরীর নাড়াচাড়া করে বোঝার চেষ্টা করছিলাম, আসলে কী ঘটেছে।’

ইত্তেফাক/টিএ