বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নতুন ম্যাক স্টুডিও ডেস্কটপ এবং আইফোন এসই আনলো অ্যাপল

আপডেট : ১০ মার্চ ২০২২, ০৮:৩৮

‘পিক পারফর্মেন্স’ আয়োজনের প্রচার শেষে প্রযুক্তি পণ্যের বাজারে নতুন আলোচনা-আলোড়নের জন্ম দিয়েছে প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল। প্রথম পাঁচ মিনিটের উপস্থাপনার পর আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি নতুন যে পণ্যগুলোর ঘোষণা দিয়েছে, তা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য মাথাব্যথার কারণ হতে যাচ্ছে।

নতুন আইফোন, আইপ্যাড এবং ম্যাকের ঘোষণা আসছে- এমন শোনা যাচ্ছিল বেশ কিছু দিন ধরেই। কিন্তু চমক দিয়েছে ডিভাইসগুলোর অভ্যন্তরীণ হার্ডওয়্যার আর অ্যাপল যে কার্যক্ষমতার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে, সেটি।

হার্ডওয়্যার উপস্থাপনার আগে ‘অ্যাপল টিভি প্লাস’ সেবায় নতুন সিরিজ আর সিনেমা আনার ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়াও স্ট্রিমিং সেবাটিতে ‘ফ্রাইডে নাইট বেইজবল’ আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপল; প্রতি শুক্রবার দুটি করে বেইজবল ম্যাচ প্রচার করা হবে স্ট্রিমিং সেবাটিতে। পাশাপাশি আইফোন ১৩’র সবুজ রঙের দুটি আলাদা সংস্করণ দেখিয়েছে অ্যাপল।

এই প্রাথমিক ঘোষণাগুলোর শেষেই নতুন ডিভাইসগুলো নিয়ে মুখ খোলা শুরু করে অ্যাপল।

  • আইফোন এসই

প্রথমেই ঘোষণা এসেছে তৃতীয় প্রজন্মের আইফোন এসই নিয়ে। অ্যাপল আইফোন এসই’র নতুন সংস্করণ আনবে— এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল বেশ কিছু দিন ধরেই। সে গুঞ্জনের বেশিরভাগই সত্যি প্রমাণিত হয়েছে। আইফোনের ‘সাশ্রয়ী দামের’ সংস্করণটিতে চমক হিসেবে যোগ হয়েছে এ১৫ বায়োনিক চিপ। আইফোন ১৩-তেও একই প্রসেসর ব্যবহার করেছে অ্যাপল।

হোম বাটন ও টাচ আইডি সেন্সর আছে নতুন এসইতে। ডিভাইসটির সামনের-পেছনের প্যানেলকে “স্মার্টফোনের বেলায় সবচেয়ে শক্তিশালী গ্লাস” বলে আখ্যা দিয়েছে অ্যাপল। আগের সংস্করণে তুলনায় বেড়েছে নতুন এসই’র ব্যাটারি ক্ষমতা। পেছনের প্যানেলে আছে ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ৫জি সংযোগ সুবিধা থাকবে ডিভাইসটিতে।

অ্যাপল নতুন আইফোন এসই’র প্রিঅর্ডার নেবে শুক্রবার, ১১ মার্চ থেকে। আর বাজারে ডিভাইসটির আনুষ্ঠানিক অভিষেক হবে ১৮ মার্চ। ডিভাইসটির ৬৪ জিবি মডেলের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৪২৯ ডলার।

  • আইপ্যাড এয়ার

অ্যাপল নতুন আইপ্যাড এয়ারের প্রিঅর্ডার নেবে ১১ মার্চ থেকে, বিক্রি শুরু হবে ১৮ মার্চ। দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৫৯৯ ডলার।

এম১ আল্ট্রা ও ম্যাক স্টুডিও

‘পিক পারফর্মেন্স’ আয়োজনে অ্যাপল নতুন যা কিছু দেখিয়েছে, তার মধ্যে সম্ভবত সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে ম্যাক কম্পিউটারের নতুন সংস্করণ ‘ম্যাক স্টুডিও’ আর এম১ চিপের নতুন সংস্করণ ‘এম১ আল্ট্রা’।

অ্যাপল প্রথমেই চমক দিয়েছে ‘এম১ আল্ট্রা’ চিপ নিয়ে। এম১ ম্যাক্স সংস্করণে ‘ডাই-টু-ডাই ইন্টারকানেক্ট’ সংযোগ ব্যবস্থা আছে। এই সংযোগ ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে দুটি এম১ ম্যাক্স চিপ একসঙ্গে জুড়ে ‘এম১ আল্ট্রা’ তৈরি করেছে অ্যাপল। সোজা কথায়, এক লাফে কম্পিউটিং সক্ষমতা দ্বিগুণ করেছে অ্যাপল; দ্বিগুণ হয়েছে জিপিইউ এবং সিপিইউ কোর সংখ্যা। ১২৮ জিবি পর্যন্ত মেমোরি সমর্থন করবে চিপটি। দুটি আলাদা এম১ ম্যাক্স চিপ চালাতে যতোটা বিদু্যত্ শক্তি প্রয়োজন, তার চেয়ে কম বিদু্যত্ খরচে চলবে এম১ আল্ট্রা।

আর এম১ চিপের নতুন সংস্করণটির অভিষেক হচ্ছে ম্যাক স্টুডিও’র মাধ্যমে। সিনেট বলছে, ম্যাক মিনি’র সঙ্গে তুলনা করলে, উচ্চতার হিসেবে দ্বিগুণ নতুন ম্যাক স্টুডিও। অ্যাপল বলছে, ম্যাক প্রো’র থেকেও ভালো পারফর্মেন্স দেবে ম্যাক স্টুডিও। মূলত পেশাদারী কাজে ব্যবহারের লক্ষ্য নিয়েই কম্পিউটারটি বানিয়েছে অ্যাপল।

  • অ্যাপল স্টুডিও ডিসপ্লে

অনেকটা ম্যাক স্টুডিও’র পরিপূরক ডিভাইস হিসেবে নতুন ‘অ্যাপল স্টুডিও ডিসেপ্লে’ উপস্থাপন করেছে অ্যাপল। সিনেট বলছে, ২৭ ইঞ্চির ৫কে রেটিনা ডিসপ্লেটির প্রোফাইল অনেকটাই ২৪ ইঞ্চির আইম্যাকের মতো। ডিসপ্লেটিতে এ১৩ বায়োনিক চিপ রেখেছে অ্যাপল। আইপ্যাডের মতো ‘সেন্টার স্টেজ’ ফিচার নিয়েও কাজ করতে সক্ষম অ্যাপল স্টুডিও ডিসপ্লে।

ডিসপ্লেটিতে আছে ১২ মেগাপিক্সেলের বিল্ট-ইন ওয়েবক্যাম, একাধিক মাইক, ছয়টি স্পিকার এবং চারটি ইউএসবি-সি পোর্ট। ইউএসবি-সি পোর্ট গুলোর মধ্যে একটি থান্ডারবোল্ট। অ্যাপল স্টুডিও ডিসপ্লে’র দাম শুরু হবে ১ হাজার ৫৯৯ ডলার থেকে। স্ট্যান্ড এবং ‘অ্যান্টিরিফ্লেক্টিভ ন্যানো সারফেস স্ক্রিন’-এর জন্য খরচ করতে হবে বাড়তি পয়সা। ডিসপ্লেটি বাজারে কিনতে পাওয়া যাবে ১৮ মার্চ থেকে।

ইত্তেফাক/ ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন