রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণ শিখতে বিদেশ যাবেন ২০ কর্মকর্তা

আপডেট : ০১ এপ্রিল ২০২২, ১১:২৬

‘সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্প’র আওতায় বাঘ সংরক্ষণ শিখতে বিদেশ যাবেন ২০ কর্মকর্তা। এছাড়া ৫০০ জনের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, সুন্দরবনে বন্যপ্রাণীর আপতকালীন আশ্রয়ের জন্য ১২টি মাটির কেল্লা নির্মাণ ও প্রকল্পের সকল কর্মকাণ্ডের প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করা হবে। 

তিন বছর মেয়াদি এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৫ কোটি ৯৩ লাখ টাকা; যার মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০২২ সালের মার্চ থেকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত। 

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) খুলনা সুন্দরবন বিভাগ কার্যালয়ে সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্প বিষয়ক অবহিতকরণ সভায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে সুন্দরবন বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) আবু নাসের মহসিন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সুন্দরবনের রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার বাংলাদেশের জাতীয় পশু। বর্তমানে বাঘ সারা বিশ্বে একটি বিপন্ন প্রাণী। বিশ্বের ১৩টি দেশে মাত্র ৩ হাজার ৮৪০টি বাঘ বর্তমানে প্রকৃতিতে টিকে আছে। ২০১৮ সালের জরিপ অনুযায়ী সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ১১৪টি; যা ২০১৫ সালে ছিল ১০৬টি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ টাইগার অ্যাকশন প্লান (২০০৯-২০১৭), ২০১০ সালের বিশ্ব বাঘ সম্মেলনের অঙ্গীকার, দ্বিতীয় টাইগার অ্যাকশন প্লান (২০১৬-২০২৭) ও গ্লোবাল টাইগার ফোরামের সিদ্ধান্তের আলোকে বাঘ সমৃদ্ধ দেশসমূহের আসন্ন (২০২২ সালে) দ্বিতীয় বিশ্ব বাঘ সম্মেলনের প্রস্তুতি ও বাংলাদেশের বাঘের হালনাগাদ তথ্যাদি সংগ্রহ এবং সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণের নিমিত্তে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় কর্তৃক গত ২৩ মার্চ ‘সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্প’ শীর্ষক প্রকল্পের প্রশাসনিক অনুমোদন প্রদান করা হয়। প্রকল্পটিতে অনুমোদিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৫ কোটি ৯৩ লাখ টাকা; যার মেয়াদ ২০২২ সালের মার্চ থেকে ২০২৫ সাল।

তিনি বলেন, প্রকল্পটির প্রধান প্রধান কাজ হচ্ছে, সুন্দরবনের বাঘ-মানুষ দ্বন্দ্ব নিরসনে ৪৯টি ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিমের ৩৪০ জন সদস্য ও ৪টি রেঞ্জের কমিউনিটি পেট্রোল গ্রুপের ১৮৫ জন সদস্যকে প্রশিক্ষণ প্রদান, পোশাক সরবরাহ ও প্রতি মাসে বনকর্মীদের সঙ্গে মাসিক সভা সম্পন্ন করা। এছাড়া সুন্দরবনের বাঘ গণনা করা, এর জন্য আবাসন লঞ্চ ও সাপোর্ট বোট ভাড়া করা, ক্যামেরা ট্রাপিং পদ্ধতিতে বাঘ গণনার জন্য ২০০টি বিশেষ ক্যাটাগরির ক্যামেরা সংগ্রহ, ব্যাটারি, এসডি কার্ডসহ অন্যান্য দ্রব্যাদি কেনা, জরিপ দলের সদস্যদের প্রশিক্ষণসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়াদি সংগ্রহে ব্যয় হবে ৩ কোটি ২৭ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, বাঘ মানুষের দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রকল্প এলাকার ৬০ কিলোমিটার অংশে নাইলনের বেড়া নির্মাণ করে সংঘাত প্রশমনের প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হবে। এছাড়া বিশ্ব বাঘ সম্মেলনে অংশগ্রহণ, বাঘ সংরক্ষণে সফল এমন দেশে ২০ জনের শিক্ষা সফরসহ ৫০০ জনের বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, সুন্দরবনে বন্যপ্রাণীর আপতকালীন আশ্রয়ের জন্য ১২টি মাটির কেল্লা নির্মাণ ও প্রকল্পের সকল কর্মকাণ্ডের প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করা হবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তিনটি স্তরে ল্যান্ড এরিয়ায় জরিপ করতে প্রায় চার মাস সময় লাগবে। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমান অর্থবছরে কোনো অর্থ ছাড় হয়নি। তবে, আগামী অর্থবছরের শুষ্ক মৌসুম থেকে মূল কাজ শুরু হবে। 

 

 

ইত্তেফাক/এসজেড

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

‘সুন্দরবনে ১১৪টি বাঘ এবং ৪০ থেকে ৫০ হাজার বানর আছে’

সুন্দরবনে নিজ পেশায় ফিরছে ১০ লাখ মানুষ

সুন্দরবন অঞ্চলে আর দস্যুবৃত্তি করতে দেওয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দস্যুদের উৎপাতমুক্ত সুন্দরবন