শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নাটোরে ইউএনওর গাড়ির চাপায় সাংবাদিক নিহত

আপডেট : ০৯ মে ২০২২, ১৯:৩৭

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুখময় সরকারের গাড়ির চাপায় এক সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। সোমবার (৯ মে) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে সিংড়া উপজেলার নিংগইন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই সাংবাদিকের নাম সোহেল আহমেদ জীবন (৩৩)। তিনি বগুড়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক দুরন্ত সংবাদের সিংড়া উপজেলা প্রতিনিধি।

ইউএনওর সরকারি গাড়ির ব্যবহার করেন তার স্ত্রী সিংড়ার গোল ই আফরোজ সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক মানসি দত্ত মৌমিতা। সেই সরকারি গাড়ি নিয়ে কলেজে যাওয়ার সময় গাড়ির চাপায় ওই সাংবাদিক আহত হন। আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে সিংড়ার নিজ কর্মস্থল থেকে বন্দর স্কুল অ্যান্ড কলেজে যাওয়ার পথে নিংগইন পেট্রোল পাম্পের পাশে নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির চাপায় গুরুতর আহত হন সাংবাদিক সোহেল আহমেদ জীবন। পরে আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

ইউএনওর গাড়ির নিচে দুর্ঘটনা কবলিত মোটরসাইকেল। ছবি: ইত্তেফাক

সিংড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন লিডার রওশন আলী জানান, ইউএনওর গাড়ির চাপায় সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। ইউএনওর গাড়ির নিচ থেকে মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করা হয়েছে। 

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম সামিরুল ইসলাম জানান, সাংবাদিক সোহেল আহমেদ জীবনের চিকিৎসার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করা হয়েছে। তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। তবে নিহতের পরিবারকে সহযোগিতা করার কথা জানান তিনি।

ঝলমলিয়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজওয়ানুল ইসলাম বলেন, গাড়িটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ইত্তেফাক/এএএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

কেঁচো সার প্রয়োগে বাড়ছে জমির উর্বরতা, কমছে খরচ

বিশেষ সংবাদ

রাজশাহীতে ভুঁইফোঁড় হাসপাতাল-ক্লিনিকের ছড়াছড়ি!

কচা নদীর তীরে স্লুইসগেট-বেড়িবাঁধ, স্বস্তিতে এলাকাবাসী 

রংপুরে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ব্যবসায়ীকে হত্যা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

‘ছাত্রদলকে দিয়ে বিএনপি আবারও দেশে অগ্নিসন্ত্রাসের অপচেষ্টা করছে’

বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে ৪০ জন হাসপাতালে 

চিকিৎসক সংকটে খুমেক ক্যানসার ইউনিট, সেবা থেকে বঞ্চিত রোগীরা

জোয়ার এলেই ডুবে যায় রাস্তা