শনিবার, ২১ মে ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ফিলিপাইনে সাবেক স্বৈরশাসক মার্কোসের ছেলের জয়ের সম্ভাবনা

আপডেট : ১০ মে ২০২২, ০৪:০০

কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে গতকাল ফিলিপাইনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে ব্যাপক ভোট পড়ার আশা করেছেন নির্বাচন কমিশনার। কিছু ভোটকেন্দ্রে ভোট জালিয়াতি ও সংঘাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবারের নির্বাচনে মূল লড়াই হচ্ছে বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট লেনি রবার্ডো এবং ফার্দিন্যান্দ মার্কোস জুনিয়রের মধ্যে। দেশটির সাবেক স্বৈরশাসক ফার্দিনান্দ মার্কোসের ছেলে মার্কোস জুনিয়রেরই জয়ের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে বলে ভোট বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

ফিলিপাইনের এবারের নির্বাচনকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ এই নির্বাচনে কে জয় পাবেন তার ওপর নির্ভর করবে দেশটি গণতান্ত্রিক পদ্ধতির দিকে যাবে কি না তার ওপর। ফার্দিনান্দ মার্কোস জুনিয়র ২০১৬ সালে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করে রবার্ডোর কাছে হেরেছিলেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফার্দিনান্দ মার্কোস জুনিয়র (৬৪) জয়ী হলে বিতর্কিত মার্কোস পরিবার প্রায় তিন দশক পর আবারও মালাকানাং প্রাসাদে ফিরে আসবে। 

মার্কোস পরিবারের বিরুদ্ধে ১০ বিলিয়ন ডলারের দুর্নীতি, লুটপাট ও নৃশংসতার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। ফিলিপাইনের মানুষের প্রবল গণআন্দোলনের মুখে ক্ষমতা ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার আগে দেশের রাজকোষ খালি করে গিয়েছিল এই পরিবার। অনেকেই চান না অত্যাচারী মার্কোস পরিবার আবারও ক্ষমতায় আসুক। অপেক্ষাকৃত বেশি বয়সিরা এখনো মার্কোস পরিবারের অত্যাচার ও হত্যাকাণ্ডের কথা ভোলেনি। তাদের কাছে বিষয়টি অকল্পনীয়।

 যদিও বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে, মার্কোস জুনিয়রের জেতার সম্ভাবনা বেশি। অন্য প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে বেশ বড় ব্যবধানেই এগিয়ে থাকবেন। ফিলিপাইনে ‘বংবং’ নামে পরিচিত এই প্রার্থী তরুণ সমাজের কাছে জনপ্রিয়। তিনি সমতার কথা বলছেন। আরো বেশি চাকরি, পণ্যের দাম কমানো এবং কৃষি ও অবকাঠামো খাতে আরো বেশি বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ভাইস প্রেসিডেন্ট পদের জন্য তিনি সঙ্গে পাচ্ছেন বিদায়ি রাষ্ট্রপ্রধান রদ্রিগো দুতের্তের মেয়ে সারা দুতের্তে কার্পিওকে।

মার্কোস জুনিয়রের রাজনৈতিক প্রচারণায় বাবার শাসনামলের ভালো দিকগুলোকে সবার সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করছেন। তার স্লোগান ‘আবারও জেগে উঠুন’। এর মাধ্যমে তিনি ফিলিপাইনের সোনালি যুগের কথা সবাইকে মনে করিয়ে দিতে চেয়েছেন। ফার্দিনান্দ মার্কোস ১৯৬৫ সালে ক্ষমতায় আসেন এবং ১৯৮৬ সালে আন্দোলনের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতাচু্যত করা হয়। তিনি হাওয়াই দ্বীপে নির্বাসনে যেতে বাধ্য হন। তখন মার্কোস জুনিয়রের বয়স ছিল ২৯।

ইত্তেফাক/এসআর

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বিশেষ সংবাদ

মার্কোস তনয়ের প্রত্যাবর্তন কি ঘটতে যাচ্ছে ফিলিপাইনে

মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর জন্য রাজনীতিবিদরা আলাদা লোক নিয়োগ দেন

ফিলিপাইনে বন্যা ও ভূমিধসে ৫৮ জনের মৃত্যু

ফিলিপাইনে ভূমিধস ও বন্যায় ২৪ জনের প্রাণহানি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ফিলিপাইনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১

ফিলিপাইনে কারাগারে দাঙ্গা, নিহত ৬

ফিলিপাইনে টাইফুন রাইয়ে মৃত্যু ৪০০ ছাড়িয়েছে

ফিলিপাইনে সুপার টাইফুন: মৃত্যু বেড়ে ৩৭৫