রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে নয়া সমীকরণের আভাস

  • মেয়র পদে নৌকার বিদ্রোহী ইমরানের প্রার্থিতা প্রত্যাহার
  • মেয়র পদে পাঁচ জন ও কাউন্সিলরসহ তিন পদে ১৪৭ প্রার্থী চূড়ান্ত
আপডেট : ১৫ জুন ২০২২, ০২:০৪

নানা জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মাসুদ পারভেজ খান ওরফে ইমরান খান অবশেষে তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে তিনি তার মনোনয়নপত্রটি প্রত্যাহারের আবেদন করেন। এর আগে বিকাল ৩টায় নগরীর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি কার্যালয়ের হলরুমে তিনি সংবাদ সম্মেলন করে নৌকার প্রতি সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

গত কয়েক দিন ধরেই নির্বাচনের মাঠে ইমরানের থাকা-না থাকা এবং গত মঙ্গলবার থেকে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও প্রার্থীর বিপরীতমুখী বক্তব্য নিয়ে বেশ ধূম্রজালের সৃষ্টি করেছিল। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন থেকে ইমরানের সরে দাঁড়ানোর ঘোষণার মধ্য দিয়ে তা কেটে গেল। তবে তার এই প্রার্থিতা প্রত্যাহার নিয়ে দলীয় অঙ্গনসহ নগরীর বিভিন্ন মহলে ছড়াচ্ছে নানা গুঞ্জন।

ইমরানের আছে ‘নিজস্ব ভোট ব্যাংক’। তার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের কারণে এবার মেয়র পদে এখানে ভোটের মাঠে নয়া সমীকরণ দেখা যাবে বলে মনে করছেন রাজনীতিক বিশ্লেষকরা। এদিকে বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে মেয়র পদে পাঁচ জন ও কাউন্সিলরের দুইটিসহ তিনটি পদে মোট ১৪৭ প্রার্থীর তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানান নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী।

প্রার্থিতা প্রত্যাহার নিয়ে ইমরান যা বললেন

সংবাদ সম্মেলনে মাসুদ পারভেজ খান ইমরান বলেন, ‘আমি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান। গত ১০ বছর ধরে মানুষের জন্য কাজ করে আসছি। কুমিল্লাবাসী একটা পরিবর্তন চেয়েছিল। আমার বিশ্বাস ছিল আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাব। নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের অনুরোধে ও চাপে পড়ে গত ১১ মে মনোনয়নপত্র দাখিল করি। এরপর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাসিম, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ আমাকে ও আমার বোনকে (সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি আঞ্জুম সুলতানা সীমা) নিয়ে ২৪ মে রাত ৮টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেন। তারা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মোতাবেক নৌকার বিজয়ের স্বার্থে আমাকে (ইমরান) নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরে আমার কিছু বলার নেই। তাই আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আজ (বৃহস্পতিবার) নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ 

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইমরান বলেন, নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনি কমিটিতে আমার বা আমার পক্ষের কারো নাম রাখা হয়নি। তারা না ডাকলেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ও নৌকার বিজয়ের স্বার্থে আমি ও আমার কর্মী সমর্থকেরা নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণাসহ কাজ করে যাব।’

ইমরান যখন আবেগাপ্লুত হয়ে অশ্রুভেজা কণ্ঠে সাংবাদিকদের নিকট তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিচ্ছিলেন, তখন হলরুমে উপস্হিত নেতাকর্মীরা তার এমন ঘোষণাকে প্রত্যাখ্যান করে স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় তিনি তাদের ধৈর্য ধরতে বলেন এবং নৌকার পক্ষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার নির্দেশনা দেন।

মেয়র পদে ৫ প্রার্থী ও কাউন্সিলরের দুই পদে ১৪২

মাসুদ পারভেজ খান ইমরান তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় এ সিটিতে মেয়র পদে এখন প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন ৫ জন। তারা হলেন—আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত, বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত সাবেক মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু, স্বেচ্ছাসেবক দল থেকে বহিষ্কৃত নেতা মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের নেতা মো. রাশেদুল ইসলাম ও কামরুল আহসান বাবুল। এছাড়া সিটি কাউন্সিলরের দুই পদে ১৪২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতার মাঠে আছেন।

কাউন্সিলরের দুই পদে ১২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

এ সিটিতে কাউন্সিলরের দুই পদে প্রার্থী ছিলেন ১৫৫ জন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের দিনে এদের মধ্যে ১২ জন তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এদের মধ্যে সিটির সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের দুই জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন, তারা হলেন ২ নম্বর ওয়ার্ডে বৃষ্টি আক্তার ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডে নাছরিন সুলতানা। এছাড়া সাধারণ ওয়ার্ডে ১০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন, তারা হচ্ছেন—৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. শাহজাহান, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোসলেম উদ্দিন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে মো. ফরহাদ হোসেন, ২১ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মাহবুবুর রশিদ (মাহবুব), ২২ নম্বর ওয়ার্ডে বিজয় রতন দেবনাথ, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে আবদুল মতিন খান, ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে মো. জহিরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর হোসেন ও মো. গোলাম ছারোয়ার কাউসার এবং ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাম্মদ ওসমান গণি।

নৌকার প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠিত :কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাতের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। গতকাল মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিমকে আহ্বায়ক করে ৪১ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। 

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

নদী থেকে জীবিত হরিণ উদ্ধার করলেন কৃষক বাচ্চু

টুং টাং শব্দে মুখরিত কামার পল্লী 

মাদকসহ ৪ পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

মির্জাপুরে ক্ষতিপূরণ না দিয়েই উচ্ছেদের অভিযোগ ৩৩ পরিবারের

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বিশেষ সংবাদ

জমে উঠেছে ২০০ বছরের পুরনো ‘ঘিওর নৌকার হাট’

লালমনিরহাটে বন্যার্তদের মধ্যে পুনাক সভানেত্রীর ত্রাণ বিতরণ 

শিক্ষক হত্যা: জিতুর বান্ধবীকে বহিষ্কার

বিশেষ সংবাদ

শত সংকটে সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যাদুর্গতরা